Monday 17th June 2024
Monday 17th June 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/public_html/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে সাপ আতঙ্ক, ৫ ডজন ডিম সহ ২টি সাপ উদ্ধার

ভেদরগঞ্জ উত্তর তারাবুনিয়া থেকে উদ্ধারকৃত বিষধর সাপ ও ডিম। ছবি-দৈনিক হুংকার।

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে চরভাগা ও উত্তর তারাবুনিয়া থেকে দুইটি বিষধর (পানোস সাপ) সাপ উদ্ধার করা হয়েছে। এই সময় ঘরের মেঝের মাটি খুঁড়ে ৬০টি ডিম পাওয়া যায়। বুধবার (১৫ মে) দুপুরে উপজেলার উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়নের মাদবর কান্দি ও চরভাগা হাজি কান্দি এলাকা থেকে ডিমসহ সাপ দুটি উদ্ধার করে মিনু ঢালী নামে এক সাপুড়ে। চরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় আরো সাপের সন্ধান মিলেছে বলে জানিয়েছে সাপুড়ে মিনু ঢালী।
স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, পদ্মা নদী তীরবর্তী চরাঞ্চল এলাকা ভেদরগঞ্জের উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়ন। সেই ইউনিয়নের মাদবর কান্দি গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী মোক্তার প্রধানীয়া তার বসত বাড়ির একটি জ্বালানি কাঠ রাখার ঘরে বৃহদাকার বিষধর সাপ দেখতে পায়। বিষয়টি মিনু ঢালী নামক এক সাপুড়ের সাথে শেয়ার করেন তিনি। সাপুড়ে মিনু ঢালী মঙ্গলবার দুপুরে ঘরের মেঝেতে খুঁড়ে ৩০টি ডিমসহ বিষধর সাপটিকে দেখতে পায়। সাপুরে কৌশলে সাপটিকে পাকরাও করতে সক্ষম হয়। পরে পার্শ্ববর্তী চরভাগা হাজি কান্দির ইনু ছৈয়ালের বাড়িতে অপর একটি সাপের খবর পেয়ে সেখানে যায় সাপুড়ে। সেখান থেকেও একই প্রজাতির প্রায় ৬ ফুট দৈর্ঘ্যরে আরো একটি সাপ ৩০টি ডিম সহ উদ্ধার করেন তিনি।
বাড়ির মালিক মোক্তার প্রধানিয়া জানায়, সাপ দেখার পর থেকেই বাড়ির সকলে আতঙ্কে ছিলেন। সাপটি ধরার জন্য সাপুড়ের সাথে কথা বলেন তিনি। সাপুড়ে ৩০টি ডিমসহ সাপটিকে ধরেছে। সেখানে আরো সাপ থাকতে পারে মর্মে ধারণা করছেন তারা।
সাপুড়ে মিনু ঢালী জানায়, সে মোক্তার প্রধানিয়ার বাড়িতে গিয়ে একটি পরিত্যক্ত ঘরে সাপের উপস্থিততি বুঝতে পারে। পরে ঘরের মেঝেতে খুঁড়ে সাপের অনেক ডিম পায়। তখন সে ধারণা করেন আশপাশে সাপ আছে। একটু দূরে সেই দানব আকৃতির সাপটিও পাওয়া যায়। সেটি পানোস প্রজাতির সাপ। সাপটির দৈর্ঘ্য প্রায় ৬ ফুট হবে বলে তিনি ধারণা করছেন। পরবর্তীতে পার্শ্ববর্তী চরভাগা হাজি কান্দি ইনু ছৈয়ালের বাড়ির একটি ঘরে খুঁড়ে একই প্রজাতির সাপ ও সমপরিমান সাপের ডিম পেয়েছে বলেও তিনি জানান।
উত্তর তারাবুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মোঃ ইউনুছ আলী মোল্যা জানায়, চরাঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় সাপের উপদ্রোপ আছে মর্মে অনেকে তাকে অবগত করে। ইতোমধ্যে কিছু বাড়ি থেকে সাপ ও সাপের ডিম উদ্ধার করা হয়েছে। সকলকে সাবধানে চলাচল করতে হবে। কাউকে সাপে কাটলে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।