Wednesday 19th June 2024
Wednesday 19th June 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/public_html/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

গঙ্গাপ্রসাদে পর্যায়ক্রমে একই পরিবারের ৩ জনের আত্মহত্যা

গঙ্গাপ্রসাদে পর্যায়ক্রমে একই পরিবারের ৩ জনের আত্মহত্যা

একই পরিবারের ৫ সদস্যের মধ্যে ইতোমধ্যে ৩ জন আত্মহনন করে পৃথিবী থেকে চির বিদায় নিয়েছেন। সর্বশেষ গত ১৭ অক্টোবর আত্মহনন করে চির বিদায় নিয়েছেন পরিবারের কর্তা। এমন ঘটনা ঘটেছে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার জয়নগর ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রসাদ গ্রামে।
স্থানীয় ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে, ঝিনাইদহ জেলার মৃত মোবারক মৃধার ছেলে আব্দুল আজিজ মৃধা (৭০) ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। জাজিরা উপজেলার গঙ্গাপ্রসাদ গ্রামের মৃত মৈজদ্দিন মাদবরের মেয়ে কমলা বেগমের (৬০) সাথে প্রায় ৪৫ বছর পূর্বে আজিজ মৃধার বিবাহ হয়। দাম্পত্য জীবনে তাদের এক ছেলে ও ২ মেয়েসহ ৩ জন সন্তান ছিল। ঘর ভাড়াসহ নিত্য পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির চাপে স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে আজিজ মৃধা শ^শুর বাড়ি গঙ্গাপ্রসাদে চলে আসেন। ছেলে- মেয়েদের বিয়েও দিয়েছিলেন। প্রায় ৪ পূর্বে ছেলে শুকুর আলী স্ত্রীর সাথে কলহ করে আত্মহনন করে। অল্পদিনের ব্যবধানে ননদের সাথে কলহ করে আত্মহনন করে মেয়ে শিউলি। ৪ বছরের ব্যবধানে পরিবারের কর্তা আজিজ মৃধা গত ১৭ অক্টোবর আত্মহনন করেন।
এলাকাবাসী জানায়, একই গ্রামে ভ্যান চালক বারেক ফরাজীর মেয়ে কাঞ্চন মালা (২১)। কাঞ্চনমালা শারীরিক, মানসিক ও বাক প্রতিবন্ধি। বয়সের সাথে সাথে শরীরের গঠন বৃদ্ধি ছাড়া আর কিছুই বৃদ্ধি পায়নি প্রতিবন্ধি কাঞ্চন মালার। কাঞ্চন মালা খেয়ালখুশিতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেত। সুযোগ পেলেই বৃধা আজিজ মৃধা কাঞ্চন মালাকে উত্যাক্ত করতেন। কয়েকবার তার এমন আচরণ অনেকের দৃষ্টিগোচর হয়েছিল। এই নিয়ে অনেক গুঞ্জন ছিল এলাকায়। বিগত ১৭ অক্টোবর প্রতিবন্ধি কাঞ্চন মালা তার মা কোহিনুর বেগমের সাথে নদীর ঘাটে গিয়েছিল। কোহিনুর বেগম নদীর ঘাটের কাজ শেষে কাঞ্চন মালাকে খুঁজে পাচ্ছিল না। খুঁজতে খুঁজতে স্কুলগামী কিছু শিক্ষার্থীদের কাছে কাঞ্চন মালার সন্ধান জানতে চায় মা কোহিনুর। পাশের ধান ক্ষেতে কারোর কান্নার শব্দ পেয়েছে এমন তথ্য কাঞ্চন মালার মাকে জানায় শিক্ষার্থীরা। তখন ধান ক্ষেতে গিয়ে কোহিনুর বেগম কাঞ্চন মালার সাথে বৃদ্ধ আজিজ মৃধাকে অপকর্ম করতে দেখে। পরবর্তীতে বিষয়টি এলাকার মুরব্বিদের জানিয়ে বিচার দাবী করে মা কহিনুর বেগম। ওই দিন সন্ধ্যায় এলাকার মুরব্বিরা একত্রিত হয়ে ফরহাদ মল্লিকের মাধ্যমে অভিযুক্ত আজিজ মৃধাকে ডেকে পাঠায়। আজিজ মৃধার বাড়িতে গিয়ে তাকে বাড়ির উঠানে একটি আম গাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলতে দেখে ফরহাদ। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে জাজিরা থানা পুলিশকে অবগত করা হয়। সংবাদ পেয়ে জাজিরা থানা পুলিশ এসে অস্বাভাবিক মৃত্যু সম্পর্কে প্রতিবেদন তৈরী করেন। ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে প্রেরণ করেন।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।