Wednesday 19th June 2024
Wednesday 19th June 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/public_html/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

ভেদরগঞ্জের ছয়গাঁয়ে শিশু সন্তানকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ

দাদীর কোলে নিহত শিশু রাত্রী। ছবি-দৈনিক হুংকার।

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে নিজ সন্তানকে বালিশ চাপায় হত্যার অভিযোগ উঠেছে মানসিক ভারসাম্যহীন এক মায়ের বিরুদ্ধে। পারিবারিক কলহের কারণে মা রূপা বেগম তার নানীর বাড়িতে তিন সন্তানকে নিয়ে বসবাস করতেন।
গতকাল রাত ১২টার দিকে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার ছয়গাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। রোববার (২৭ আগস্ট) দুপুর আড়াইটার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। নিহত শিশুটির নাম রাত্রী তার বয়স ৩ মাস। আদিত্য নামে তার এক জমজ ভাইও আছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বিয়ের কয়েক মাস পরেই মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে রূপা বেগম। পারিবারিক কলহের কারণে স্বামী চান মিয়া সরদারের সাথে বনিবনা না হওয়ায় শ্বশুর বাড়ির পাশেই রূপা তার নানী বাড়িতে থাকতেন। গতকাল রাতে জমজ ভাই-বোনদের মধ্যে রাত্রী মারা যায়। নিহতের বাবার অভিযোগ তাকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে।
নিহতের ফুফু তাহমিনা বেগম বলেন, আমার ভাবি বাচ্চাদের রেখে বাজারে বাজারে ঘুরে বেড়াত। ওনি মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় আমরা ধারণা করছি, শিশুটিকে বালিশ চাপা দিয়ে মেরে ফেলেছে।
এ বিষয়ে ভেদরগঞ্জ থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মাসুদুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে আমরা মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি। তবে সুরতহালে শিশুটির শরীরে কোন রকম চিহ্ন পাইনি। বাকিটা ময়নাতদন্তের ফল আসলে বলা যাবে। এ ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।