রবিবার, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
রবিবার, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুর পৌরসভার নির্বাচনে নৌকার প্রচার প্রচারণা, নেতিয়ে পড়েছে ধান

শরীয়তপুর পৌরসভার নির্বাচনে নৌকার  প্রচার প্রচারণা, নেতিয়ে পড়েছে ধান
এ্যাড. পারভেজ রহমান জন, এ্যাড. লুৎফর রহমান ঢালি, সাহিদ সরদার। ছবি-দৈনিক হুংকার।

দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে শরীয়তপুর পৌরসভার নির্বাচন আগামী ১৬ জানুয়ারী শনিবার অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে ৪ জন দলীয় মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরমধ্যে জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক প্রায়ত পিপি এডভোকেট হাবিবুর রহমানের পুত্র শরীয়তপুর জজ কোর্টের এপিপি এ্যাডভোকেট পারভেজ রহমান জন নৌকা প্রতিক, শরীয়তপুর পৌরসভা বিএনপির সভাপতি এডভোকেট লুৎফর রহমান ঢালি ধানের শীষ প্রতিক, জাতীয় পার্টির সাহিদ সরদার লাঙ্গল প্রতিক ও ইসলামী আন্দোনের আলহাজ তানভির আহম্মেদ বেলাল হাতপাখা প্রতিকে নির্বাচন করছেন।
একই সাথে পৌরসভায় ৯টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৬ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রথম শ্রেণীর এ পৌরসভায় মোট ৩৮ হাজার ৬০০ জন ভোটার রয়েছে। এর মধ্যে ১৯ হাজার ১০০ নারী ভোটার ও ১৯ হাজার ৫০০ পুরুষ ভোটার রয়েছে।
প্রথমবারের মত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পদ্ধতিতে এ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নিয়ে অনেকের মধ্যে দ্বিধাদ্বন্দ্ব রয়েছে। ইভিএম সম্পর্কে এখনো অনেক ভোটারের ধারণা নাই। ভোটারগণ কিভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে তাই নিয়েও রয়েছে শঙ্কা।
ইতোমধ্যে পৌর এলাকায় প্রার্থীদের জনসংযোগে জমে উঠেছে। ধান শীষ প্রতিকের প্রার্থী ছাড়া অন্যান্য প্রার্থীরা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। মেয়র প্রার্থীরা ওঠান বৈঠক ও পথসভা করছেন। দুপুর ২টা থেকে চলছে প্রার্থীদের গুন, যোগ্যতা ও প্রদত্ত অঙ্গিকার নিয়ে মাইকিং এর মাধ্যমে প্রচার।
প্রতিটি ওয়ার্ডেই মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোষ্টার ও ব্যানারে ছেয়ে গেছে। তবে ধানের শীষের প্রার্থীর কোন জনসংযোগ, ব্যানার ও পোষ্টার পৌরসভার কোথাও দেখা যাচ্ছে না।
ইতোমধ্যে রিটানিং কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন নির্বাচনে সুষ্ঠভাবে ভোট গ্রহণের জন্য সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন। সুষ্ঠু ভাবে ভোট গ্রহণের লক্ষ্যে পৌরসভার ১৮টি ভোট কেন্দ্রের প্রতিটিই নজরদারীতে রেখেছেন তারা।
বিএনপির প্রার্থী এড. লুৎফর রহমান ঢালী বলেন, আমি একা একা প্রতিটি ওয়ার্ডে ঘুরেছি। বিভিন্ন চাপে আমার প্রচারণা ব্যর্থ হচ্ছে। আমার কর্মীরা কোথাও বের হতে পারছেনা। ইতোমধ্যে আমার পোষ্টার ও ব্যানার ছিরে ফেলা হয়েছে। ইভিএম-এ আমরা নতুন। এই সম্পর্কে আমার কোন ধারণা নাই। তবে সুষ্ঠভোট হলে আমি বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হব।
আওয়ামীলীগের প্রার্থী এডভোকেট পারভেজ রহমান জন বলেন, আমি বিভিন্ন এলাকায় জনসংযোগ করেছি। দলীয় নেতা-কর্মীরা আমার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। ভোটারদের অনেক সাড়াও পেয়েছি। আমার বিশ্বাস নির্বাচন সুষ্ঠ হবে। আমি বিপুল ভোটের ব্যবধানে মেয়র নির্বাচিত হব।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।