শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২০ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ রজব ১৪৪৪ হিজরি
শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

নড়িয়ায় প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যা

নিহত দানেশ সরদার। ছবি-সংগৃহিত।

নড়িয়া উপজেলার আন্ধারমানিক বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে দানেশ সরদার (৪০) নামে এক প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ২৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টার সময় নড়িয়া উপজেলার ঠাকুর কান্দি কলম আকনের বাড়ি সংলগ্ন রাস্তায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত প্রবাসী দানেশ সরদার একই এলাকার সোনামিয়া সরদারের ছেলে।
স্থানীয় ও নড়িয়া থানা সূত্রে জানা গেছে, নিহত দানেশ সরদার দীর্ঘদিন প্রবাসে ছিলেন। প্রায় তিন বছর ধরে দেশে ফিরে ঢাকার সাভারে ব্যবসা করতেন। ১০ দিন ধরে তিনি নিজ বাড়ি রাজনগরে আসেন। ২৬ ডিসেম্বর সোমবার সন্ধ্যায় আন্দারমানিক বাজার থেকে ভ্যান যোগে তিনি বাড়ি ফিরছিলেন। স্থানীয় আধিপত্য বিস্তার জোরালো করতে জয়নাল মোড়লের নেতৃত্বে জনি মোড়ল, শাহিন মোড়ল, আলামিন ফকির ও সিহাবসহ প্রায় ২৫-৩০ জন সন্ত্রাসী দানেশের পথরোধ করে চাপাতি, দা ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য সেখান থেকে ঢাকা নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
নিহতের চাচা রফিক বেপারী বলেন, দানেশ দীর্ঘদিন প্রবাসে ছিল। দেশে ফিরে ঢাকার সাভারে ব্যবসা করে। বর্তমানে সে কোন রাজনীতি বা এলাকার দলাদলির সাথে জড়িত ছিল না। পূর্ব শত্রুতার জেরে তাকে জয়নাল মোড়লের নেতৃত্বে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে প্রায় ৩০টি জখম ছিল। ঘটনার পরে তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে ডাক্তার তাকে ঢাকায় রেফার করে। অতিরিক্ত রক্তখড়ন হওয়ায় ঢাকা নেওয়ার পথে দানেশের মৃত্যু হয়। এই বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।
নড়িয়া থানা অফিসার ইনচার্জ হাফিজুর রহমান জানান, ঘটনার পর থেকে ঘটনাস্থলে আছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ঘটনার পর থেকে আসামীরা পালিয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।