শুক্রবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
শুক্রবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

জাজিরায় স্কুল ছাত্রকে অপহরণের পর হত্যা, গ্রেফতার ২

জাজিরায় স্কুল ছাত্রকে অপহরণের পর হত্যা, গ্রেফতার ২
জাজিরায় স্কুল ছাত্রকে অপহরণের পর হত্যা, গ্রেফতার ২

শরীয়তপুর জাজিরা উপজেলার পূর্ব নাওডোবা এলাকায় অপহরণের পর পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ না দেওয়ায় শাকিল মাদবর (১৫) নামের এক স্কুল ছাত্রকে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার (২৭ জুন) ভোরে পুলিশ ওই ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।শাকিল মাদবর উপজেলার হাজী কালাই মোড়লের কান্দি গ্রামের সালাম মাদবরের ছেলে। সে স্থানীয় এ্যাম্বিশন কিন্ডার গার্টেন এন্ড হাই স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত ২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত সাকিব মাদবর বাবু (২০) উপজেলার হাজি মমিন আলী ফরাজী কান্দি গ্রামের মজিবর মাদবরের ছেলে ও ইমরান মোড়ল (২০) পশ্চিম নাওডোবা মজিদ ঢালীর কান্দি গ্রামের খালেক মোড়লের ছেলে।

শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে শরীয়তপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার এসএম আশরাফুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন শিকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) তানভীর হায়দার শাওন, জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজহারুল ইসলাম সরকার প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ সুপার জানান, ২৫ জুন (বৃহস্পতিবার) বিকেলে জাজিরা উপজেলার হাজী কালাই মোড়লের কান্দি গ্রামের শাকিল মাদবরকে খেলার কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় অভিযুক্ত সাকিব মাদবর বাবু। পরে সাকিব মাদবর বাবু (২০), আক্তার মাদবর (২৬), সজিব মাঝি (২২), ইমরান মোড়ল (২০), মহসিন হাওলাদার (২৫) ও স্বপন সরদার (৪৫) অপহরণ করে উপজেলার মোসলেম ঢালীর কান্দি গ্রামের বারেক মৃধার বাড়ির পাশে আটকে রাখে। একপর্যায়ে শাকিলের চাচা শাহাজুল ইসলাম মাদবরের কাছে মুঠোফোনে ও ম্যাসেজে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন তাঁরা। অন্যদিকে শাকিলকে তার পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশীরা খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। মুক্তিপণ না দেওয়ায় শাকিলকে হত্যা করে পদ্মা সেতু সংলগ্ন ওই গ্রামের বারেক মৃধার বাড়ির পাশের বালুর মাঠে, বালু মাটি দিয়ে চাঁপা দিয়ে লাশ গুম করে রাখে। গ্রেফতারকৃত আসামী ইমরান মোড়লকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করলে তার তথ্য মতে শনিবার (২৭ জুন) ভোরে শাকিলের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তর জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় জাজিরা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছের ওই ছাত্রের বাবা সালাম মাদবর। ২৬ জুন (শুক্রবার) অপহরণ ও হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ বাবু ও ইমরানকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের সাত দিনের পুলিশ রিমান্ড চেয়ে শরীয়তপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। আর অপর আসামীদের গ্রেফতারে চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।