বৃহস্পতিবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুর-নড়িয়া সড়কে বেইলি ব্রীজ ভেঙ্গে ট্রাক খাদে, নিহত ১ আহত ৩

Auto Draft
দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাক। ছবি-দৈনিক হুংকার।

শরীয়তপুর-নড়িয়া সড়কের একটি নির্মানাধীন কালভার্টের বেইলি সেতু ভেঙ্গে ট্রাক খাদে পরেছে। ট্রাকের চাপায় এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। ওই দুর্ঘটনায় চার ব্যক্তি আহত হয়েছে। নিহত শ্রমিক নয়ন বেপারী (৩৫) ও আহত মজিবুর রহমান, আবু তাহের ও ছবেদ খান শরীয়তপুর পৌরসভার স্বর্ণঘোষ এলাকার বাসিন্দা। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে ওই সড়কের সদর উপজেলার কুরাশি এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। দুর্ঘটনার পর থেকে ওই সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে যানা যায়, শরীয়তপুর-নড়িয়া সড়কের কুরাশি বালাখানা নামক স্থানে সড়ক বিভাগের কালভার্ট নির্মাণ কাজ করছেন এমএম বিল্ডার্স নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। ওই সড়কটি সচল রাখতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান একটি বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করে। মঙ্গলবার সকাল সারে ৯টায় পঞ্চগড় থেকে পাথর বোঝাই করে (কুষ্টিয়া-ট-১১-১৬২৬) একটি ট্রাক শরীয়তপুর হয়ে নড়িয়ার যাচ্ছিল। ট্রাকটি ওই সড়কের নির্মানাধীন বেইলী ব্রিজের উপর ওঠার সাথে সাথে ব্রিজটি ভেঙ্গে ট্রাক খাদে পড়ে যায়। এসময় বেইলি ব্রিজটির নিচে নির্মাণ শ্রমিকরা কাজ করছিল। এতে ৪ জন নির্মাণ শ্রমিক গুরত্বর আহত হয়। তাৎক্ষনিক স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা আহত শ্রমিকদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নয়ন বেপারীকে মৃত ঘোষনাা করে।
শরীয়তপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ভূইয়া রেদওয়ানুর রহমান বলেন, কালভার্টটি নির্মাণে মূল প্রকল্পে বিকল্প সড়ক নির্মাণে বরাদ্দ ছিল। কিন্তু সংশোধিত প্রস্তাবে বেইলী ব্রিজ নির্মাণের চুক্তি সম্পন্ন হয়। আমরা সড়ক আইন অনুযায়ী বেইলী ব্রিজের দুই পাশে ১০ টনের অধিক ভারী যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করে সাইনবোর্ড দিয়েছি। দূর্ঘটনার শিকার ট্রাকটি ৩০ টনের অধিক পাথর নিয়ে বেইলী ব্রিজে ওঠায় ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ে। আমরা এই বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।