মঙ্গলবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি
মঙ্গলবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গোসাইরহাটে গৃহবধূর আত্মহত্যা

Auto Draft
গোসাইরহাটে গৃহবধূর আত্মহত্যা

শরীয়তপুরের গোসাইরহাটে বিয়ের ৭ মাসের মাথায় গলায় ফাঁস দিয়ে মোসাঃ তারা বেগম (২০) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে ।
সোমবার (২ আগস্ট) সকাল ৯টায় তারা বেগম ননদের বাড়ীতে ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।
গোসাইরহাট থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তারা বেগম (২০) ও তার স্বামী ফয়সাল আহমেদ (২৬) ঢাকা থেকে কিছুদিন আগে বেড়াতে আসেন, তারা বেগমের ননদ নিগার সুলতানার স্বামী মিজান রাড়ীর বাড়িতে এরপর থেকেই স্বামী-স্ত্রীর মাঝে পারিবারিক কলহ নিয়ে ঝগড়াঝাটি হয়।
নিহতের শশুর গিয়াস উদ্দিন জানান, আমি আমার মেয়ে জামাইর বাড়িতে থাকি, সোমবার সকালে ঘুম থেকে উঠে আমি কালীখোলা বাজারে আসি তারপর বাড়ী গিয়ে দেখে ছেলের বউ তারা বেগম যেই রুমে ঘুমানো ছিলো সেই ঘরের ভিতর থেকে আটকানো। পরে দরজা ভেঙ্গে দেখি ফ্যানের সাথে ওড়না দিয়ে ফাঁস দিয়ে আছে তারা বেগম। এরপর আমি লোক জন ডেকে ছেলের বউকে তাৎক্ষণিক গোসারহাট সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়।
স্থানীয় সূত্রে আরো জানা যায়, ডামুড্যা উপজেলার বড় শিধলকুড়া গ্রামের হাজি মোঃ গিয়াসউদ্দিনের ছেলে ফয়সাল আহমেদ (২৬) এর সাথে ডামুড্যা উপজেলার কনেশ্বর ইউনিয়নের সৈয়দ বস্তা গ্রামের মোঃ আলমগীর ফকির এর মেয়ে মোসাঃ তারা বেগমের সাথে আট মাস আগে বিয়ে হয়।
তারা ও ফয়সালের আত্মীয় জাকির হোসেন বলেন, তাদের মাঝে গত কয়েক মাস ধরে পারিবারিক কলহ ছিল। আমরা চেষ্টা করছিলাম তাদের ঝগড়াঝাঁটি মিটমাট করার জন্য কিন্তু আসলে তার আগেই তারা বেগম দুনিয়া থেকে চলে গেলেন।
গোসাইরহাট সরকারী হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. মোঃ ইসমাইল হোসেন সরকার বলেন, সকাল ১১টার দিকে নিহতের শ্বশুর তাকে হাসপাতাল নিয়ে আসেন। হাসপাতালে আনার পূবেই তার মৃত্যু হয়েছে।
গোসাইরহাট থানার ওসি মোল্লা সাহেব আলী বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট আসার পরে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।