শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি
শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বৃদ্ধাকে হাসপাতালে নিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার

বৃদ্ধাকে হাসপাতালে নিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার
অসহায় বৃদ্ধাকে নিজের গাড়ীতে করে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন গোসাইরহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আলমগীর হোসাইন। ছবি-দৈনিক হুংকার।

দুই দিন যাবৎ বৃষ্টিতে ভিজে প্রচন্ড জ্বরে কাঁপছিল শরীর, মাছি ভনভন করছিল চেহারাসহ শরীর জুড়ে। এক বৃদ্ধাকে পড়ে থাকতে দেখা গেল শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার সদর বাজার দাশেরজঙ্গল বাজারের পুরাতন মাছপট্টি এলাকায়। গতকাল শুক্রবার ৩০ জুলাই স্থানীয় এক সংবাদকর্মী খবর দেন গোসাইরহাটের উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে, সাথে সাথে চলে আসেন বৃদ্ধাকে কাপড় কিনে দেন, করোনার ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও স্থনীয়দের সহযোগিতায় সরকারী গাড়ীতে নিজ হাতে উঠিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যান, কেবিনে ভর্তি করান। শ^াসকষ্ট, জ¦র ও কাশি থাকায় করোনা পরীক্ষা করা হয়, পজেটিভ হলে করোনা ইউনিটে রাখা হয় মানসকি ভারসাম্যহীন বৃদ্ধাকে। নাম পরিচয় না বলতে পারায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইউএনও তাঁর ব্যক্তিগত ফেইসবুক পেজে ছবি পোষ্ট করলে পরিবারের সদস্যরা খোঁজ পায় ৩১ জুলাই দুপুরের দিকে। ইউএনও’র সাথে যোগাযোগ করেন গোসাইরহাট ইউপি’র প্যানেল চেয়ারম্যান সুমন ঢালী, ভাই হযরত আলী সরদার ও ভাইয়ের ছেলে দিদারুল সরদার।
স্থানীয় সুত্র জানায়, গোসাইরহাট ইউনিয়নের কাশিখন্ড গ্রামের মৃত হামিদ মোল্লার স্ত্রী চান ভানু (৭০) মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে গত দুইদিন যাবত বাড়ী থেকে বের হয়ে যান, পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুজি করেও পায়নি তাকে। তাঁর একজন রহিমা বেগম নামে কন্যা সন্তান আছেন যিনি স্বামীসহ ঢাকায় থাকেন।
বৃদ্ধার ভাইয়ের ছেলে দিদারুল সরদার বলেন, ফুফুকে দুইদিন যাবত পাচ্ছিলাম না, উনি মানসিক ভারসাম্যহীন, ছেলে নাই এক মেয়ে সে স্বামীসহ ঢাকা থাকেন। ইউএনও স্যারের ফেইসবুক পেজে ফুফুর ছবি দেখে গ্রামবাসী চিনলে অমাদের প্যানেল চেয়ারম্যান মো. সুমন ঢালীর মাধ্যমে হাসপাতালে গিয়ে ফুফুকে শনাক্ত করি। ফুফু করোনা পজেটিভ হওয়ায় হাসপাতালে আছেন সুস্থ হলে বাড়ী নিয়ে যাবো।
বৃদ্ধার ভাই হযরত আলী সরদার বলেন, স্যারের উছিলায় বোনকে পেয়িছি, স্যারকে আল্লাহ ভালো রাখুক।
গোসাইরহাট ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান মো. সুমন ঢালী বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইউএনও আলমগীর হোসাইন স্যার ছবি দিলে সেটা দেখে মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলাকে আমি চিনি। স্যারের কারণে আমরা বৃদ্ধাকে ফিরে পেয়েছি।
গোসাইরহাট হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ সিকদার আফ্রিদি রিজভি বলেন, গতকাল ইউএনও স্যার এক বৃদ্ধাকে তার সরকারি গাড়ী করে নিয়ে আসে, বৃদ্ধার শরীরে জ্বর ও শ^াসকষ্ট ছিল, করোনা পজেটিভ হয়েছে।
গোসাইরহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আলমগীর হোসাইন বলেন, স্থানীয় এক সংবাদকর্মীর মাধ্যমে বৃদ্ধার খবর পাই। বিষয়টি সাথে সাথে ডিসি স্যারকে জানালে বৃদ্ধা মহিলাকে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করার কথা বলেন, আমি হাসপাতালে নিয়ে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করি, গণমাধ্যমকর্মী ও ফেইসবুকের মাধ্যমে পরিবারের খোঁজ পেয়েছি সুস্থ হলে বাড়ী যাওয়ার ব্যবস্থা করবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।