মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি
মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বিভিন্ন জেলায় এসডিএসের ১৮টি অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ

বিভিন্ন জেলায় এসডিএসের ১৮টি অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ
জেলা প্রশাসকের হাতে অক্সিজেন সিলিন্ডার সহ চিকিৎসা সামগ্রী তুলে দিচ্ছেন এসডিএস এর নির্বাহী পরিচালক রাবেয়া বেগম। ছবি-দৈনিক হুংকার।

মহামারির করোনার শুরু থেকেই অন্যান্য জেলার পাশাপাশি নিজ জেলা শরীয়তপুরের মানুষের পাশে রয়েছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা এসডিএস। এবার তারই ধারাবাহিকতায় সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক মো: পারভেজ হাসান এর হাতে ৫টি অক্সিজেন সিলিন্ডার তুলেদেন এসডিএস এর নির্বাহী পরিচালক রাবেয়া বেগম। এসময় উপস্থিত ছিলেন এসডিএস এর পরিচালক বিএম কামরুল হাসান, উপ-পরিচালক অমলা দাস সহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ। দেশের এই সংকটময় মূহুর্তে মানুষের জীবন রক্ষার্থে এসডিএস এর অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ কার্যক্রম উদাহরণ হয়ে থাকবে বলে মন্তব্য করেন জেলা প্রশাসক।
এরই ধারাবাহিকতায় গত ১২ জুলাই রাজবাড়ী জেলায় ৫টি, ফরিদপুর জেলায় ৫টি অক্সিজেন সিলিন্ডার হস্তান্তর করা হয়। এসডিএস এর পক্ষ থেকে রাজবাড়ি ও ফরিদপুর জেলায় অক্সিজেন সিলিন্ডার হস্তান্তর করেন এসডিএস এর পরিচালক বিএম কামরুল হাসান। অক্সিজেন সিলিন্ডার গ্রহণ করেন ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার ও রাজবাড়ির জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম। এসময় উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ি জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: মাহাবুর রহমান শেখ সহ এসডিএস এর অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।
এছাড়াও গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলায় গত ১৪ জুলাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার যোবায়ের মোহাম্মদ রাশেদ এর হাতে ৩টি অক্সিজেন সিলিন্ডার হস্তান্তর করেন এসডিএস এর জোনাল ম্যানেজার পরিমল সাহা।
সংস্থার উপকারভোগী ও কর্ম এলাকার মানুষের অক্সিজেন সেবা বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে ৭টি অক্সিজেন সিলিন্ডার এবং কয়েক জন দক্ষ্য পেরামেডিক্্স সহ একটি অক্সিজেন ব্যাংক স্থাপন করেছে।
গত বছর ২০২০ সালে এসডিএস শরীয়তপুর, মাদারীপুর ও ফরিদপুর জেলায় ২৩টি অক্সিজেন সিলিন্ডার, ৫০টি নেভ্যুলাইজার মেশিন, থার্মাল মিটার ১৯টি, অক্সিজেন ফ্লো মিটার-৪টি ও অন্যান্য পরিস্কার পরিচ্ছন্ন সামগ্রী বিতরণ করে। তাছাড়াও স্টার্ড ফান্ড, ডব্লিউএফপি ও ইডকো এর সহায়তায় ১০ হাজার ৫৩০ টি পরিবারের মাাঝে মোট ৪ কোটি ৩০ লাখ ৫০ হাজার টাকার নগদ অর্থ, খাদ্য সামগ্রী ও পরিচ্ছন্ন উপকরণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এছাড়াও হাত দোয়ার জন্য উল্লেখিত জেলা গুলোতে ২৪টি হ্যান্ড ওয়াশ পয়েন্ট স্থাপন করা হয়েছিল এবং সেই সাথে সাবান ও পানি সরবরাহ করা হতো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।