মঙ্গলবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি
মঙ্গলবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুরে আওয়ামীলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচন সভা অনুষ্ঠিত

শরীয়তপুরে আওয়ামীলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচন সভা অনুষ্ঠিত
শরীয়তপুরে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্য রাখছেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ছাবেদুর রহমান খোকা সিকদার। ছবি-দৈনিক হুংকার।

দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহত রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে পালন করেছে শরীয়তপুর জেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সহযোগি সংগঠন। দিবসের কর্মসূচীর মধ্যে ছিল জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর প্রতিকৃতিতে পুস্পার্ঘ অর্পণ, আলোচনা সভা, কেক কাটা, দোয়া ও মোনাজাত।
২৩ জুন বিকাল ৪টায় জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ছাবেদুর রহমান খোকা শিকদারের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুর রব মুন্সী, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আবুল হাসেম তপাদার, ফজলুর রহমান ঢালী, যুগ্ম সম্পাদক মির্জা হজরত আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান উজ্জল, আব্দুর রাজ্জাক পিন্টু, সদস্য এ্যাড. আলমগীর মুন্সী, শরীয়তপুর পৌরসভার মেয়র পারভেজ রহমান জন, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. জাহাঙ্গীর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, সদর উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সামিনা ইয়াসমিন, শরীয়তপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ মোঃ বাচ্চু বেপারী, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুহুন মাদবর, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফাহাদ হোসেন তপু, জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মহসিন মাদবর সহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
বক্তারা বলেন, ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন পুরান ঢাকার কেএম দাস লেনের ঐতিহাসিক রোজ গার্ডেনে তৎকালীন পাকিস্তানের প্রথম প্রধান বিরোধী দল হিসেবে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠা লাভ করে। প্রথম কাউন্সিলে মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী কে সভাপতি ও শামসুল হককে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। তখন তরুণ নেতা শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন কারাগারে বন্দি। বন্দি অবস্থায় তাকে সর্বসম্মতিক্রমে প্রথম কমিটির যুগ্ম-সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। ১৯৫৩ সালে ময়মনসিংহে দলের দ্বিতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। এই কমিটিতে মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী সভাপতি এবং শেখ মুজিবুর রহমান সাধারণ সম্পাদক হন। ১৯৫৫ সালের ২১-২৩ অক্টোবর ঢাকার সদরঘাটের রূপমহল সিনেমা হলে দলের তৃতীয় কাউন্সিল অধিবেশনে আওয়ামী লীগ অসাম্প্রদায়িক সংগঠনে পরিণত হয়। তখন ‘মুসলিম’ শব্দটি বাদ দিয়ে দলের নতুন নামকরণ হয় পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগ। পরে কাউন্সিল অধিবেশনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে মওলানা ভাসানী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বহাল থাকেন। স্বাধীনতা পরবর্তী দলটির নামকরণ হয় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ।
প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই দলটি বাংলাদেশ ও বাঙ্গালী জাতির কল্যাণে কাজ করে আসছে। দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আওয়ামীলীগের বিকল্প নাই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।