মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি
মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শরীয়তপুরের ২টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন করলেন

গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শরীয়তপুরের ২টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন করলেন
শরীয়তপুর মডেল মসজিদের ফলক উন্মোচন করছেন জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান। ছবি-দৈনিক হুংকার।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রথম পর্যায়ে সারাদেশে ৫০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র উদ্বোধন করা হয়েছে। এরমধ্যে শরীয়তপুর সদর উপজেলা ও গোসাইরহাট উপজেলা ২টি মসজিদের ভার্চুয়াল উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১০ জুন বৃহষ্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টায় গণভবন থেকে ভার্চুয়াল মাধ্যমে উদ্বোধন করা হয়। শরীয়তপুর সদর উপজেলা ও গোসাইরহাট উপজেলার প্রতিটি মসজিদের জন্য নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে সাড়ে ১২ কোটি টাকা।
শরীয়তপুর সদর উপজেলা মডেল মসজিদ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেদুর রহমান খোকা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানভীর হাসান, জেলা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী অমিত কুমার দেব, শরীয়তপুরের পৌরসভা মেয়র পারভেজ রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনদীপ ঘরাই, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক রনি, সদর উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আহাম্মদ তালুকদার, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসেন সহ বিভিন্ন মসজিদের ইমাম, মুছল্লি ও বিভন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।।
জানা যায়, মসজিদ ভিত্তিক সমাজের গুরুত্ব বিবেচনায় নিয়ে ইসলামি মূল্যবোধের প্রসার ও ইসলামি সংস্কৃতি বিকাশের উদ্দেশ্যে দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে বর্তমান সরকার। এতে ৮ হাজার ৭২২ কোটি টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে। জেলা ও উপজেলা মিলে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে জেলা পর্যায়ে প্রতিটি মডেল মসজিদের ৪তলা ও উপজেলা পর্যায়ে ৩ তলা বিশিষ্ট ভবন। মসজিদে নারী-পুরুষের নামাজ আদায়ের সুবিধাসহ প্রতিবন্ধীদের জন্যও থাকছে বিশেষ ব্যবস্থা। লাইব্রেরি, গবেষণা, প্রশিক্ষণ, দাওয়াতি কার্যক্রমসহ বহুমুখী কাজের কেন্দ্র হিসেবে গড়ে উঠছে এসব মসজিদ, যা মফস্বল থেকে ঢাকা পর্যন্ত ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের একটি চেইন হিসেবে কাজ করবে বলে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের। এতে ধর্ম নিয়ে ব্যবসা ও জঙ্গিবাদ নিরসন হবে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।
সদর উপজেলা মডেল মসজিদের ফলক উন্মোচন কালে জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান বলেন, এই মডেল মসজিদের বিশালতা ও সৌন্দর্যের ধারে কাছে এই সদর উপজেলায় আর কোন স্থাপনা নাই। ১৩ হাজার ২৬০ বর্গফুটের এই স্থাপনার মধ্যে হেফজখানা, অফিস. মৃত ব্যক্তির গোসলের জায়গা রয়েছে। লাইব্রেরীসহ মহিলাদের জন্য নামাজের আলাদা জায়গা রয়েছে। এক কথায় ইসলামের শান্তি ও সংস্কৃতি এই মসজিদে রয়েছে। যখন ৫৬০টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন হবে তখন শরীয়তপুরের সবকয়টি মসজিদের উদ্বোধন হবে।

শরীয়তপুর মডেল মসজিদ উদ্বোধন পরবর্তী দোয়া ও মোনাজাত করছেন জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান সহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ। ছবি-দৈনিক হুংকার।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।