মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি
মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দাবী না মানলেই ১০ জুন থেকে শরীয়তপুরে পরিবহন ধর্মঘট

দাবী না মানলেই ১০ জুন থেকে শরীয়তপুরে পরিবহন ধর্মঘট
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি মো. ফারুক আহাম্মদ তালুকদার। ছবি-দৈনিক হুংকার।

অবৈধ থ্রি-হুইলার, অটোরিক্সা, নসিমন, করিমন, ভটভটি ও ভাড়ায় চালিত মটরসাইকেল বন্ধে আরটিসি এবং জেলা সড়ক নিরাপত্তা কমিটির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের দাবিতে শরীয়তপুরে সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা সড়ক পরিবহন-মিনিবাস মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। ৮ জুন বেলা ১১টায় জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি মো. ফারুক আহাম্মদ তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক মোঃ বাচ্চু বেপারী ও আন্ত:জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ফারুক চৌকিদার।
এই সময় মালিক গ্রুপের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল বারেক মুন্সী, সহ-সভাপতি আমির হোসেন খান, ক্যাশিয়ার আ: খালেক পালোয়ান, লাইন সেক্রেটরি নাসির উদ্দিন বেপারী, সাধারণ মালিক মো. আবুল কালাম মিয়া প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। আগামী ৯ জুনের মধ্যে দাবী আদায় না হলে অনিদিষ্ট কালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট আহবান করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় সংবাদ সম্মেলন থেকে।
সংবাদ সম্মেলনে মালিক গ্রুপের সভাপতি মো. ফারুক আহাম্মদ তালুকদার বলেন, অবৈধ থ্রি-হুইলার, অটোরিক্সা, নসিমন, করিমন, ভটভটি ও ভাড়ায় চালিত মটরসাইকের বন্ধে আরটিসি এবং জেলা সড়ক নিরাপত্তা কমিটির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের দাবিতে গত ৩ জুন জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছি। সেখানে আমরা আগামী ৯ জুন পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছি। আমাদের দাবী মেনে না নিলে ১০ জুন থেকে অনিদিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট। অবৈধ যানবাহনের কারণে আমাদের ১৭২টি বাস মালিক ও ১ হাজার ৫০০ শ্রমিক মানবেতর জীবনযাপন করছে। এই সময় আমরা সকল বাস জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে রেখে গাড়ির চাবি জেলা প্রশাসকের কাছে হস্তান্তর করব। যাত্রি হয়রানী কমাতে মাইকিং করা হবে।
আন্তঃজেলা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ফারুক চৌকিদার বলেন, করোনাকালে আমাদের পরিবহন একেবারেই বন্ধ ছিল। এখন সরকারি নির্দেশণা মেনে গাড়ি চালাতে হয়। তারপরেও অবৈধ যানবাহনের কারণে রাস্তায় যাত্রি পাওয়া যায় না। শ্রমিকরা তাদের পেশা পরিবর্তন করতেছে। এর পরেও যদি সড়কে অবৈধ যানবাহন থাকে তাহলে আমাদের ব্যবসা ধরে রাখতে পারব না। তাই প্রশাসনের কাছে আমাদের দাবী সড়ক থেকে অবৈধ থ্রি-হুইলার, অটোরিক্সা, নসিমন, করিমন, ভটভটি ও ভাড়ায় চালিত মটরসাইল বন্ধ এবং আরটিসি ও জেলা সড়ক নিরাপত্তা কমিটির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন না হলে আমরা ধর্মঘট আহবান করব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।