মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি
মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুর সদর সাব-রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে দুইমাস ধরে কার্যক্রম বন্ধ

শরীয়তপুর সদর সাব-রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে দুইমাস ধরে কার্যক্রম বন্ধ

প্রায় দুইমাস ধরে শরীয়তপুর সদর উপজেলা সাব- রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ে কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। প্রথমে লকডাউনে সরকার ঘোষিত ছুটি এবং পরবর্তীতে দায়িত্বরত সাব-রেজিস্ট্রার অসুস্থ থাকায় এই সমস্য হচ্ছে বলে জানা গেছে সাব-রেজিস্ট্রার অফিস ও দলিল লিখক সমিতির মাধ্যমে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে জমির ক্রেতা ও বিক্রেতাগণ। দীর্ঘ সময় সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের কার্যক্রম বন্ধ থাকায় অর্থনৈতিক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন অনেক দলিল লিখক।
সদর সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয় ও দলিল লিখক সমিতি সূত্রে জানাগেছে, একেএম রফিকুল ইসলাম গত বছরের ১ জুন সদর উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ে সাব- রেজিস্ট্রার হিসেবে যোগদান করেন। গত ১৪ এপ্রিল থেকে লাকডাউনের কারণে সাব- রেজিস্ট্রিার অফিসের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। ১৭ এপ্রিল কার্যক্রম শুরু হয়ে ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত চলমান থাকে। তারপর থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত সাব-রেজিস্ট্রার অসুস্থ হয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করেন। তিনি সুস্থ না হওয়ার কারণে অদ্যবধি তার কার্যালয়ের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। এতে স্ট্যাম্প ভেন্ডার, দলিল লিখক, জমি ক্রেতা-বিক্রেতাসহ এর সাথে সম্পৃক্ত সকলে বেকার হয়ে পড়েছে। সাব-রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে জমি ক্রেতা-বিক্রেতা হাসি মুখে এসেও মন খারাপ করে চলে যেতে দেখা গেছে। তবে আশার প্রদীপ হয়ে এসেছে ভেদরগঞ্জ উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার আরিফুর রহমান। তিনি সপ্তাহের মঙ্গল ও বুধবার সদর সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে খন্ডকালীন দায়িত্ব পালন করবেন।
দলিল লিখক সমিতির আলহাজ্ব মো. নুরুল হক মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক বিএম মকবুল হোসেন জানায়, দীর্ঘদিন কার্যক্রম বন্ধ থাকায় সদর সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের সকল দলিল লিখকই বেকার হয়ে পড়েছে। গ্রাহকও মনবল হারিয়ে ফেলেছে। এদের মধ্য থেকে অনেক ক্রেতা বা বিক্রেতা প্রবাসে চলে গেছে, কেউ মারা গেছেন, আবার কেউ অফিস থেকে ছুটি পাচ্ছে না দলিলও করতে পারবেনা। এতে যেমন দলিলের সংখ্যা কমে যাবে তেমনি এলাকায় দ্বন্দ্ব ফেসাদও লেগেই থাকবে। আমরা এই সমস্যার সমাধান প্রত্যাশা করছি।
ভোগান্তি শিকার ক্রেতা-বিক্রেতারা জানায়, জমি ক্রয়ের চাইতে দলিল করে নেয়া অনেক কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। দলিল অফিস বন্ধ থাকায় তারা জমির মালিকানা পরিবর্তণ করতে পারছে না। অনেক ক্রেতা বা বিক্রেতা কষ্টের টাকায় জমি কিনেও দলিল করে নিতে পারছেনা।
সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের সহকারী দিলরুবা আক্তার লিপি জানায়, অনেক দিন দাপ্তরিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় কাজের জটলা অনেকগুন বেড়েছে। তাই আগামী ৮ জুন মঙ্গলবার থেকে ভেদরগঞ্জ উপজেলা অফিসের সাব-রেজিস্ট্রার সদরে দুইদিন দায়িত্ব পালন করবেন। দায়িত্বরত সাব-রেজিস্ট্রার সুস্থ হলে পুণরায় কাজে যোগদান করবেন। তাহলে সমস্যার সমাধান হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।