মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি
মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দুই বছর ধরে রবিউলের প্রতিবন্ধী ভাতা বন্ধ

Auto Draft
রবিউল আউয়াল ভূইয়া। ফাইল ফটো।

রবিউল আউয়াল ভূইয়া নামে এক প্রতিবন্ধী দুই বছর ধরে ভাতা থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে বলে জানা গেছে। সদর উপজেলা সমাজসেবা দপ্তর, ইউনিয়ন পরিষদ ও ব্যাংক থেকে কোন প্রকার সহায়তা না পেয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে প্রতিবন্ধী ছেলেকে নিয়ে তার পিতা। যত তাড়াতারি ভাতা মিলবে তত তাড়াতাড়িই জুটবে রবিউলের চিকিৎসা।
জানাগেছে, রবিউল আউয়াল ভূইয়া (১৮) শরীয়তপুর সদর উপজেলার চিতলিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড চিতলিয়া গ্রামের শহিদুল ভূইয়া ও রিনা আক্তার দম্পতির ঘরে জন্মগ্রহণ করে। বছর দুয়েক পূর্বে শহিদুলের সাথে রিনার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। সেই থেকে রবিউল পিতার সাথে থাকে। শহিদুল ভূইয়ার সংসার থেকে রিনা চলে যাওয়ার সময় ছেলে রবিউলের প্রতিবন্ধী কার্ডটি নিয়ে যায়। সেই থেকে রবিউল প্রতিবন্ধী ভাতা থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে।
সদর উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয় থেকে জানা গেছে, রবিউলের মা রিনা আক্তার সমাজ সেবা কার্যালয়ে এসে অভিযোগ করে গেছেন তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়ার পর থেকে রবিউল তার সাথে থাকেন। রবিউলের প্রতিবন্ধী ভাতা যেন তার মায়ের হাতে দেয়া হয়। সেই থেকে রবিউলের প্রতিবন্ধী ভাতা বন্ধ রয়েছে।
রবিউলের পিতা শহিদুল ভূইয়া বলেন, রবিউল আমার সাথে থাকে। রবিউলকে নিয়ে উপজেলা সমাজসেবা অফিসে অনেকবার গিয়েছি। সেখানকার কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে এবং তাদের কথামতো থানায় জিডি করেছি। এখন পর্যন্ত আমার ছেলের প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ডটি সমাধান পেলাম না। আমার ছেলের প্রতিবন্ধী ভাতা পেলে তার চিকিৎসা করাব। এখন কর্তৃপক্ষের কাছে আমার নিবেদন তারা যেন তাড়াতাড়ি ভাতা পাওয়ার সুব্যবস্থা করেন।
সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মো. নজরুল ইসলাম বলেন, রবিউলের প্রতিবন্ধী জরিপ কার্ড দিয়ে নতুন হিসাব খুলতে হবে। পুরাতন বইয়ের উপর রবিউলের মায়ের আপত্তি আছে। এইটা নিয়ে কি করা যায় তা পরবর্তীতে দেখা যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।