বৃহস্পতিবার, ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুরে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ পালন শুরু

শরীয়তপুরে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ পালন শুরু
শরীয়তপুরে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত অতিথিবৃন্দ। ছবি-দৈনিক হুংকার।

“মুজিববর্ষের উচ্ছাসে, স্বাধীনতার পঞ্চাশে, পুষ্টি গড়ে ভিত্তি, উন্নয়নের উন্মেষে” এ শ্লোগানে ও জনগণের খাদ্যাভাস ও খাদ্য পরিকল্পনায় পুষ্টির বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে ‘খাদ্যের কথা ভাবলে, পুষ্টির কথাও ভাবুন’। এ প্রতিপাদ্য নিয়ে শরীয়তপুরে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ পালন শুরু হয়েছে।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এর সহযোগিতায় ২৫ এপ্রিল শনিবার শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মিলনায়তন থেকে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ-২০২১ এর শুভ উদ্বোধন করেন শরীযতপুর জেলা সিভিল সার্জন ডা. এস.এম আবদুল্লাহ আল মুরাদ।
এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর সদর ১০০ শয্যা আধূনিক হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ মুনীর আহমেদ খান, শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুমন পোদ্দার, সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার মাহবুবার রহমান, সিনিয়র স্টাফ নার্স মনিশা রানী প্রমুখ।
সপ্তাহ ব্যাপি কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে জেলার সকল মসজিদে স্বাস্থ্য ও পুষ্টিবার্তা প্রচার, খাদ্যের কথা ভাবলে, পুষ্টির কথাও ভাবুন প্রতিপাদ্যের উপর আলোচনা ও মতবিনিময়। মা ও শিশুর পুষ্টির বিষয় সচেতনতা মূলক প্রচারণা, ব্লাড পেষার, ব্লাড সুগার ও রক্তের গ্রুপ নির্নয়। জেলার সকল ক্লিনিকে মা-শিশু ও গর্ভবতী মায়ের সেবা প্রদান, ইফতার ও খাদ্র সামগ্রী বিতরণ, পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনি অনুষ্ঠান।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সিভিল সার্জন বলেন, জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় আসার পরে দেশে শিশু মৃত্যুর হার কমেছে। এখন মাত্র ১০ শতাংশের মতো মানুষ পুষ্টিহীনতায় ভুগছে। পর্যাপ্ত পুষ্টি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জাতীয় পুষ্টিনীতি-২০১৫ কে অনুসরণ করে দ্বিতীয় পুষ্টিনীতি-২০২৫ এর পন্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
পুষ্টিনীতি-২০২৫ এর মধ্যে রয়েছে-শিশুর জন্মের এক ঘণ্টার মধ্যে মায়ের বুকের দুধ খাওয়ানো ৮০ শতাংশে উন্নিত করা, ছয় মাসের কম বয়সীদের বুকের দুধ খাওয়ানোর হার বাড়িয়ে ৭০ শতাংশে উন্নিত করা। এছাড়া ২০ থেকে ২৩ সপ্তাহ বয়সী শিশুর বুকের দুধ খাওয়ানোর হার ৯৫ শতাংশ করা, ছয় থেকে ২৩ মাস বয়সী শিশুর নূন্যতম খাবার বাড়িয়ে ৪০ শতাংশ করা, কম ওজনের জন্মহার কমিয়ে ১৬ শতাংশ করা ও পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুর খর্বাকৃতি হার কমিয়ে ২৫ শতাংশ করা।
সিভিল সার্জন বলেন, আজ থেকে আগামী ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশের মতো শরীয়তপুর জেলাতেও পালন করা হবে পুষ্টি সপ্তাহ। তবে করোনা দূর্যোগের কারণে এ বছর অনেক কর্মসূচীই বাদ ও সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।