সোমবার, ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি
সোমবার, ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুরে তীব্র বৃষ্টির মাঝেও থেমে নেই সেনাবাহিনীর ত্রান কার্যক্রম

শরীয়তপুরে তীব্র বৃষ্টির মাঝেও থেমে নেই সেনাবাহিনীর ত্রান কার্যক্রম
শরীয়তপুরে তীব্র বৃষ্টির মাঝেও থেমে নেই সেনাবাহিনীর ত্রান কার্যক্রম

পবিত্র রমজান মাস এবং তীব্র বৃষ্টির মধ্যেও থেমে নেই করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন ও অসহায় মানুষের মাঝে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর খাদ্যসামগ্রী বিতরন।

প্রতিদিনের ন্যায়  বৃহস্পতিবার শরীয়তপুরের ডামুড্যায় খাদ্য সহায়তা প্রদান করে গেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। শুক্রবারও জেলার বিভিন্ন স্থানে নিম্ন মধ্যবিত্ত ও অসহায় দরিদ্র দুস্থ পরিবারের ঘরে ঘরে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়ে গেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। ২৮ ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট এর উদ্যোগে এ খাদ্য সহায়তার বিতরণ কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে।

এই খাদ্য সামগ্রী পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেন ১২ ল্যান্সার এর ক্যাপ্টেন তালুকদার মঈনউদ্দিন আজমী।

তিনি বলেন আমাদের উর্দ্ধতন কর্মকর্তার আদেশ অনুযায়ী আমাদের এই খাদ্য সহায়তা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। আমরা প্রতিদিনই শরীয়তপুরের বিভিন্ন যায়গায় এই উপহার সামগ্রী পৌছে দিচ্ছি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাথে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে মহসিন খন্দকার সোহাগ এবং পি এম নিরব।

২৮ ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্টেরে কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল সামি – উদ – দৌলা চৌধুরী বলেন, এটা কোন সাহায্য নয়, এটা তাদের প্রাপ্য, আমরা আমাদের মতাে করে বিভিন্ন এলাকা থেকে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে প্রকৃত লােকদেরকে তাদের প্রাপ্য পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করছি ।

তারই ধারাবাহিকতায় প্রতিনিয়ত আমরা মাঠে কাজ করে যাচ্ছি। বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে এদের তথ্য আমরা সংগ্রহ করি তারপরে বাড়িতে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেই । আমরা চাই যে প্রকৃত খাদ্য সহায়তা পাওয়ার প্রাপ্য সেই পাক । ইতিমধ্যে আমরা শরীয়তপুর জেলার প্রতিটি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছি । এদের মধ্যে অনেকেই আছেন মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত এবং একেবারে অসহায় দুস্থ পরিবার ।

যারা মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত এরাই আসলে সবচাইতে বেশি অসহায়। তারা কারো কাছে চাইতেও পারে না। তারা বলতেও পারছে না , চলতেও পারছেনা । আবার কিছু আছে একেবারেই অসহায় যাদের কছে এখনও কোন খাদ্য সহায়তা পৌছেনি । এসব লােক গুলােকে খাদ্য সহায়তা দিয়ে তাদের প্রাপ্য তাদের বুঝিয়ে দিচ্ছি। গত কয়েকদিনের খুঁজে পাওয়া এরকম বেশ কিছু পরিবারের মাঝে আমরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়ে এসেছি । আমার প্রতিদিনই কোনো না কোনো এলাকায় খাদ্য সহায়তা করে যাচ্ছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।