রবিবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ রজব ১৪৪৪ হিজরি
রবিবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুরে বিশ্ব এইডস দিবস পালিত

শরীয়তপুরে বিশ^ এইডস দিবসের আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন জেলা প্রশাসক মো: পারভেজ হাসান। ছবি-দৈনিক হুংকার।

“অসমতা দূর করি, এইডস মুক্ত বিশ্ব গড়ি” এই প্রতিপাদ্যের মাঝ দিয়ে শরীয়তপুর জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্যোগে বিশ্ব এইডস দিবস পালিত হয়েছে।
জাতীয় এইডস/এসটিডি কন্টোল, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ঢাকা এর সহয়োগিতায় বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) সকালে বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে সিভিল সার্জন ডাঃ আবুল হাদি মোহাম্মদ শাহপরান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানভীর হায়দার শাওন, শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ আব্দুস সোবাহান, জেলা স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মাহাবুবার রহমানের সঞ্চালনায় পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপন করেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডাঃ ইব্রাহিম মাঝি।
প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক বলেন, এই দিবসটি হলো একটি আন্তর্জাতিক দিবস। প্রতিবছর এই দিবসটির একটি প্রতিপাদ্য থাকে। এই বছরের প্রতিপাদ্য নির্ধারিত হয়েছে- ‘অসমতা দূর করি, এইডস মুক্ত বিশ্ব গড়ি’।
১৯৮৮ সাল থেকে প্রতি বছর ১ ডিসেম্বর দিনটিকে বেছে নেয়া হয়েছে। এইচআইভি সংক্রমণের জন্য এইডস মহামারি ছড়িয়ে পড়ার বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে এবং যারা এই রোগে মারা গেছেন তাদের প্রতি শোক পালন করতে এই দিনটিকে বেছে নেয়া হয়েছে।
জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে বর্তমানে এইচআইভি/এইডস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় ১৩ হাজার। এসব রোগীর মধ্যে এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়ে চিকিৎসার আওতায় এসেছে মাত্র ছয় হাজার ৬০৬ জন।
ইউএনএইডস এর তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে বিশ্বে প্রায় ৩৪ মিলিয়ন মানুষ এইডস আক্রান্ত রয়েছে এবং এ পর্যন্ত প্রায় ৩৫ মিলিয়ন মানুষ এ মরণঘাতি রোগে মৃত্যুবরণ করেছে। এর ফলে এটি নথিভুক্ত ইতিহাস অনুযায়ী বিশ্বব্যাপী গুরুত্বপূর্ণ অন্যতম জনস্বাস্থ্য বিষয় হিসেবে পরিণত হয়েছে।
বিশ্বের অনেক অঞ্চলে সাম্প্রতিক উন্নত অ্যান্টিরেট্রোভাইরাল চিকিৎসা পৌঁছোনোর ফলে, ২০০৫ সালে সর্বোচ্চ সংখ্যায় মৃত্যুর পর এইডস মহামারি থেকে মৃত্যুর হার কমেছে।
ধর্মীয় অনুশাসন আর সামাজিক রীতিনীতি মেলে চলে সবাইকে এইডস প্রতিরোধে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।