রবিবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ রজব ১৪৪৪ হিজরি
রবিবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

রাজপথে থেকেই বিএনপির সকল ষড়যন্ত্রের জবাব দেয়া হবে: পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

ব্রীজ উদ্বোধন পরবর্তী দোয়া ও মোনাজাত করছেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম। ছবি-দৈনিক হুংকার।

আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি বলেছেন, জনজীবনে বিঘ্ন ঘটলে বিঘ্নকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ব্যস্ততম সড়কে সমাবেশ করে বিএনপি জনজীবনে বিঘ্ন সৃষ্টি করলে সরকার ব্যবস্থা নিবে এটাই স্বভাবিক। কারণ সরকার জনজীবন বিঘ্ন করার, গণ্ডোগোল করার সুযোগ দিতে পারে না। সরকার তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে।
তিরি বলেন, সৎ উদ্দেশ্যে সরকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুমতি দিতে চেয়েছিলো। কিন্তু বিএনপি অসৎ উদ্দেশ্যে নয়া পল্টনে সভা করতে চায়। তারা যদি এ চেষ্টা করে সরকার কঠোর ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে।
তিনি মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানার ৪ ইউনিয়নে ৬টি ব্রীজের উদ্বোধন পরবর্তী চরভাগায় সমবেত জনতার সমাবেশে এ কথা বলেন।
উপমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে এই মুহুর্তে রিজার্ভ আছে প্রায় ৩৯ বিলিয়ন ডলার। ব্যাংকের হিসাবেও রয়েছে ২৯ বিলিয়ন ডলার। আর বাকি ডলার বিভিন্ন সংস্থায় আছে। বিএনপি’র মহাসচিবকে জিজ্ঞাসা করেছি, আপনারা যখন ক্ষমতায় ছিলেন তখন রিজার্ভ কত ছিল? একটু আমাদেরকে জানান। লজ্জা হওয়া উচিত। এই বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল, তখন মাত্র সাড়ে ৩ বিলিয়ন ডলার রিজার্ভ ছিল। সাড়ে ৩ বিলিয়ন ডলার দিয়ে দেশ শেষ হয়নি। আর এখন ৩৯ বিলিয়ন ডলার রিজার্ভ। দেশ শেষ হয়ে গেছে।
পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম আরো বলেন, রাজপথে থেকেই বিএনপির সকল ষড়যন্ত্রের দাঁত ভাঙা জবাব দেয়া হবে। বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের সম্মান ও সফলতা এনে দিয়েছেন। আর ক্ষমতালিপ্ত বিএনপি হত্যা-ক্যু-ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই তারা দেশ ও জাতির অকল্যাণে লিপ্ত। বিএনপির এই অপরাজনীতির কারণে বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক সংস্কৃতি বার বার বাধাগ্রস্ত হয়েছে।
নতুন করে বিএনপির নেয়া সকল ষড়যন্ত্র রাজপথে থেকেই মোকাবেলা করবে জনগণকে সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন। ষড়যন্ত্রের সমুচিত জবাব দিয়েই দেশের জনগণ নৌকায় ভোট দিয়ে পঞ্চমবারের মতো বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকেই দেশের প্রধানমন্ত্রী বানাবেন।
এ সময় মন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির মোল্যা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন, জেলা পরিষদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ কাইয়ুম পাইক, উপজেলা প্রকৌশলী অনুপম চক্রবর্তীসহ সখিপুর থানার বিভিন্ন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, আওয়ামীলীগ, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
উল্লেখ্য স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ভেদরগঞ্জ উপজেলার চরভাগা ইউনিয়নে ২টি, চরকুমারিয়া ইউনিয়নে ২টি, দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়নে ১টি ও ডিএমখালী ইউনিয়নে ১টি সহ মোট ৬টি ব্রীজ নির্মাণ করেছে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর শরীয়তপুরে ১৩ কোটি ৩৯ লক্ষ ২ হাজার ৭৫১ টাকা ব্যয়ে ব্রিজ ৬টি নির্মাণ করে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।