শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স ৩৯ লাখ বীমা গ্রাহকের ৫ হাজার ৪০৫ কোটি টাকা দাবী পরিশোধ করছে

শরীয়তপুর সার্ভিস সেল কার্যালয় থেকে বীমা দাবীর চেক হস্তান্তর করছেন বিএম ইউসুফ আলী। ছবি-দৈনিক হুংকার।

পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড এর শরীয়তপুরে মেয়াদোত্তীর্ণ বীমা গ্রাহকদের চেক হস্তান্তর ও ব্যবসা উন্নয়ন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার (১৯ নভেম্বর) সকাল ১০ টায় কোম্পানীর শরীয়তপুর সার্ভিস সেল কার্যালয়ে চেক হস্তান্তর ও ব্যবসা উন্নয়ন সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও, বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স ফোরামের প্রেসিডেন্ট এবং বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স এসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী সদস্য বি এম ইউসুফ আলী।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, কোম্পানীর উর্ধ্বতন উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোতাহার হোসেন, উর্ধ্বতন উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক নওশের আলী নাঈম, উর্ধ্বতন উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ হাবিবুর রহমান, নির্বাহী পরিচালক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, মুফতি মাওলানা দিদারুল ইসলাম, প্রকল্প পরিচালক মোঃ মোখলেছুর রহমান, উর্ধ্বতন মহা-ব্যবস্থাপক মোঃ হাবিবুর রহমান খান, প্রকল্প ইনচার্জ সৈয়দ আবুল খায়ের ও মোঃ কবির হোসেন হাওলাদার। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা সমন্বয়কারী সৈয়দ জাকারিয়া। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেনারেল ম্যানেজার মোঃ সোহানুর রহমান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে বি এম ইউসুফ আলী বলেন, বাংলাদেশের বীমা জগতে পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড সাফল্যের ২২ বছরে ৩৯ লাখ বীমা গ্রাহকের ৫ হাজার ৪০৫ কোটি টাকা দাবী পরিশোধ করেছে। পপুলার লাইফ সঠিক সময়ে গ্রাহকদের মৃত্যু দাবীর চেক ও মেয়াদ উত্তীর্ণ গ্রাহকগণের চেক দ্রুত পরিশোধ করছে। বি এম ইউসুফ আলী উপস্থিত কর্মকর্তাদের উদ্দেশে গুরুত্বপূর্ণ দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন জিএম সৈয়দ নজরুল ইসলাম, ডিজিএম ও ডামুড্যা সার্ভিস সেল ইনচার্জ মোহাম্মদ নান্নু মৃধা, ডিজিএম মোঃ মনির হোসেন, রায়হান মাহমুদ সুজন, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেনসহ বাছাইকৃত বিভিন্ন ইউনিটের ইউনিট ম্যানেজার, ব্রাঞ্চ ম্যানেজারগণ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।