রবিবার, ২ অক্টোবর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
রবিবার, ২ অক্টোবর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স অনুষ্ঠিত

পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স অনুষ্ঠিত
পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্সে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ। ছবি-দৈনিক হুংকার।

শরীয়তপুর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের উদ্যোগে শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) আদালত সম্মেলন কক্ষে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়।
চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সালেহুজ্জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কনফারেন্সে প্রধান অতিথি ছিলেন শরীয়তপুর জেলা সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল হক। এ সময় বিচার বিভাগের কর্মকর্তাগণ ছাড়াও জেলা জজ আদালতের পিপি মির্জা হযরত আলী, সকল থানার অফিসার ইনর্চাজগণ, র‌্যাবের প্রতিনিধিসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।
পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল হক তাঁর বক্তব্যে দীর্ঘদিন যাবত তদন্তাধীন থাকা মামলা সমূহের গুরুত্বের সাথে দ্রুত তদন্ত কার্য সমাপ্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল এবং পারিবারিক মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানা ও লেভি ওয়ারেন্টসহ সকল পরোয়ানা দ্রুততার সাথে তামিলের জন্য থানার অফিসার ইনচার্জগণকে নির্দেশনা প্রদান করেন।
চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সালেহুজ্জামান বলেন, ফৌজদারী বিচার ব্যবস্থায় বিচার প্রশাসন, নির্বাহী প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগ একে অপরের পরিপূরক। মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল বিচার বিভাগের প্রতি জনগণের আস্থা বৃদ্ধি ও ন্যায় বিচার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আন্তরিকতা ও সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশে সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগকে একযোগে ব্যক্তি স্বার্থের উর্ধ্বে উঠে বিচার প্রার্থী মানুষের কল্যাণে নিজ নিজ দায়িত্ব ও কর্তব্য সঠিকভাবে সম্পন্ন করার আহবান জানান।
জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান বলেন, পুলিশ বিভাগ, স্বাস্থ্য বিভাগ, জেলা আইনজীবী সমিতিসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিভাগের ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জানান। জেলার বিভিন্ন থানায় তদন্তাধীন থাকা মামলার তদন্ত কার্য দ্রুততা ও দক্ষতার সাথে আইনের নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করে আদালতে প্রতিবেদন প্রেরণ, যথাসময়ে মামলার সাক্ষী উপস্থাপন নিশ্চিত করত, তাদের নিরাপত্তা বিধান, গ্রেফতারের পর আইনের নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আদালতে সোপর্দ করার আহবান জানান। পরোয়ানা জারির ক্ষেত্রে আরও তৎপর হওয়া, নিষ্পত্তির নিমিত্তে পি.আরমূলে জব্দ থানা মালখানায় থাকা আলামতের তালিকা তৈরি করে আদালতে প্রেরণ ও আদালতে বিচারাধীন মামলা সমূহের সুষ্ঠু বিচার প্রক্রিয়া দ্রুত সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা পালনের জন্য বিচারক ও থানার অফিসার ইনচার্জসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে বিভিন্ন ধরনের দিক নির্দেশনা প্রদান করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।