শনিবার, ২ জুলাই ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২ জিলহজ ১৪৪৩ হিজরি
শনিবার, ২ জুলাই ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

গোসাইরহাটে অবৈধ ড্রেজারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা

Auto Draft
গোসাইরহাটে অবৈধ ড্রেজারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত অতিথিবৃন্দ। ছবি-দৈনিক হুংকার।

সারি সারি ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে দিনরাত বালু উত্তোলন করছে প্রভাবশালী মহল। নিয়মিত বালু উত্তোলনের ফলে জয়ন্তী নদীর এলাকা জুড়ে বসত-বাড়ী, আবাদী জমি, স্থাপনা নদী ভাঙনের ঝুঁকিতে পরেছে গোসাইরহাট উপজেলার কোদালপুর ইউনিয়নের ঠান্ডা বাজার এলাকা।
শুক্রবার (১৭ জুন) বিকালে ঠান্ডা বাজার এলাকায় ড্রেজার মেশিন বন্ধের দাবিতে প্রতিবাদ সভা করেছেন এলাকাবাসী। প্রশাসনিকভাবে ব্যবস্থা না নিলে এলাকাবাসী নিজেরাই ড্রেজার মেশিন বন্ধে ব্যবস্থা নিবেন বলে সভায় জানান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন গোসাইরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোতাহারুল ইসলাম বাচ্চু মোল্লা, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক দেওয়ান মনিরুজ্জামান, কোদালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুল কাজী, সাধারণ সম্পাদক খবির উদ্দিন খান, সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম মিয়া, মালয়েশিয়া শাখা যুবলীগের সভাপতি তাসকির আহমেদ দেওয়ানসহ এলাকার পাঁচ শতাধিক ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন।
এই প্রতিবাদের প্রধান উদ্যোক্তা, মালয়েশিয়ার শাখা যুবলীগের সভাপতি তাসকির আহমেদ দেওয়ান বলেন, অবৈধ বালু উত্তোলনকারিরা কেবল বালু তুলেই ক্ষান্ত হচ্ছে না, তারা নদী, খাল-বিল দখলেও বেপরোয়া। তারা অবৈধ বালু তোলার সুবিধার্থে নদীর পাড়ে স্থাপনা তৈরি করে পানির প্রবাহে বিঘ্ন সৃষ্টি করছে। ফলে বর্ষা মৌসুমে এলাকায় জলাবদ্ধতার মতো সমস্যাও তৈরি হচ্ছে।
তিনি আরো বলেন দুর্ভাগ্যের বিষয়, অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ ও নদী দখল-দূষণের বিরুদ্ধে আদালত বিভিন্ন সময় নির্দেশনা দিয়েছেন, কিন্তু এক্ষেত্রে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ দেখা যায়নি। উচ্চ আদালতের নির্দেশনার পরও কেন অবৈধ দখলদার-বালু উত্তোলকদের বিরুদ্ধে কঠোর ভূমিকা নেয়া হয় না, তা আমাদের বোধগম্য নয়।
এসময় অন্যান্য বক্তারা বলেন, দেশের বিভিন্ন এলাকার নদ-নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। এতে করে নদীর পাড়ে ভাঙন, রাস্তাঘাট ভেঙে যাওয়া, নদীর গতিপথ পরিবর্তনে জলবায়ু ও পরিবেশগত ক্ষতি হচ্ছে। তবুও বালু উত্তোলন করে যাচ্ছে একশ্রেণীর দুর্বৃত্ত। তারা এতটাই বেপরোয়া যে, আইন-কানুন মানা এবং পরিবেশসহ অন্যান্য দফতরের অনুমতির তোয়াক্কা তো দূরের কথা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।