শনিবার, ২ জুলাই ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২ জিলহজ ১৪৪৩ হিজরি
শনিবার, ২ জুলাই ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুরের জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে এ্যাডভোকেসী সভা

Auto Draft
শরীয়তপুরের জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে এ্যাডভোকেসী সভায় বক্তব্য রাখছেন জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান। ছবি-দৈনিক হুংকার।

আগামী ১২ জুন থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত সারাদেশে পালিত হতে যাচ্ছে ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২২। এরই ধারাবাহিকতায় শরীয়তপুর জেলা পর্যায়ের জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে এ্যাডভোকেসী ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বুধবার (৮ জুন) দুপুর ১২ টায় শরীয়তপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে সিভিল সার্জন ডাঃ এসএম আবদুল্লাহ আল মুরাদ এর সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এ্যাডভোকেসী সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার এসএম আশরাফুজ্জামান, জেলা সদর ১০০ শয্যা হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ আবদুস সোবাহান।
জেলা ইপিআই পরির্দশক মোঃ মোজাম্মেল হোসেন এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক আব্দুর রাজ্জাক রনি, ভেদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ হাসান ইবনে আমিন, নড়িয়া উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক, শরীয়তপুর পৌরসভা ইপিআই পরিদর্শক মোঃ মতিউর রহমান, গোসাইরহাট উপজেলা ইপিআই ইনচার্জ মোঃ আব্দুস সালাম।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান বলেন, বাংলাদেশের স্বাস্থ্য বিভাগ তাদের কাজের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে একাধিক পুরস্কার এনে দিয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় আগামী ১২ জুন থেকে ১৫ জুন সারাদেশের ন্যায় শরীয়তপুরেও ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২২ পালিত হবে। শরীয়তপুর জেলায় এই ক্যাম্পেইন যাতে সফল হয় তার জন্য জেলার দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রত্যেককে জাতীয় এ কর্মসূচী বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। এর জন্য প্রতিটি মসজিদের ইমাম ও খতিবদেরকে দিয়ে এই ক্যাম্পেইন সম্পর্কে জুম্মার খোদবায় সাধারণ মানুষের কাছে বার্তা পৌঁছে দিতে হবে।
পদ্মা সেতুর উদ্বোধনসহ আমাদের জেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন কোন ভাবে যেন এ কর্মসূচীর উপর প্রভাব ফেলতে না পারে।
অনুষ্ঠানের সভাপতির বক্তব্যে সিভিল সার্জন ডাঃ এস এম আবদুল্লাহ আল মুরাদ বলেন, আগামী ১২ জুন থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত সারাদেশে পালিত হবে ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২২। এ উপলক্ষে আজ আমারা এ্যাডভোকেসী ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত করলাম। ইতিমধ্যেই জেলা-উপজেলা ও মাঠ পর্যায়ের ওরিয়েন্টেশনসহ সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ভিটামিন ‘এ’ শিশুদের পুষ্টি প্রদান ও তাদের বিকাশে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই ভিটামিন রাতকানা রোগ প্রতিরোধ করে। ক্যাম্পেইন চলাকালীন ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী শিশুদের একটি নীল ক্যাপসুল এবং ১১ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুদের একটি লাল ক্যাপসুল খাওয়াবেন। সবাই যাতে কেন্দ্রে এসে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল গ্রহণ করে তা নিশ্চিত করতে হবে। কোন ভাবেই অসুস্থ্য শিশুকে এ ক্যাপসুল খাওয়ানো যাবেনা। ৬ মাসের কম বয়স ও ৬০ মাসের বেশী বয়সীদের খাওয়ানো যাবেনা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।