সোমবার, ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি
সোমবার, ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুরে এসএসসিতে রওশান সাইয়ারার প্রথম স্থান অর্জন

শরীয়তপুরে এসএসসিতে রওশান সাইয়ারার প্রথম স্থান অর্জন

এবছরের এসএসসি পরীক্ষায় শরীয়তপুর জেলার মধ্যে প্রথমস্থান অর্জন করেছে শরীয়তপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী রওশান সাইয়েরা। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ১৩০০ নাম্বারের পরীক্ষায় গোল্ডন জিপিএ-৫ সহ মোট ১২১৮ নাম্বার পেয়ে সে জেলার মধ্যে প্রথমস্থান অর্জন করেছে। শরীয়তপুর পৌর শহরের পূর্ব ধানুকা গ্রামে তাদের নিজ বাড়িতে ২০০৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন রওশান সাইয়েরা। বাবা-মা আর ২ বোনের সংসারে রওশান পরিবারের বড় মেয়ে। তার বাবা ইয়াকুব জামান সারেংগা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আর মা শামীমা পারভীন মেবীন কর্মরত আছেন পরীক্ষন বিদ্যালয় পিটিআই শরীয়তপুরে। বাবা-মা দুজনই সরকারী চাকুরীতে থাকায় ছোটবেলা থেকেই তার বেরেওঠা আর পড়াশোনা সবই হয়েছে নানু বাড়ী থেকে। ছোট বেলা থেকেই রওশান নিয়মানুবর্তিতা আর অধ্যবসায় পরিবার থেকেই রপ্ত করেছে। রওশান সাইয়েরা জানায়, পড়ালেখায় তাকে বাড়তি উৎসাহ যুগিয়েছে তার নানা জাতীয় পুরস্কার পাওয়া বিজ্ঞানী এম.এ মজিদ। নানার উৎসাহেই বিজ্ঞান বিভাগে পড়ালেখার বারতি অনুপ্রেরণা পায় সে। লেখাপড়ার ফাঁকে তার ভালো খেলার সাথী হিসেবে সে পেয়েছে তার নানুকে। তার দাদা মরহুম আব্দুল মজিদ মিয়া শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ছিলেন। তার পড়ালেখায় সবসময় অনুপ্রেরণা পেয়েছে তার বড় চাচার। বড় চাচা ডা. ইয়াহিয়া জামান খোকন এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক, কান গলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক। মেজ চাচা ইউনুস জামান গাজীপুরে সিনিয়র জেলার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। তাদের পরিবারে বড় চাচা সহ মোট ৫ জন ডাক্তার থাকায় রওশানের স্বপ্ন বড় হয়ে পরিবারের অন্য সদস্যদের মত ডাক্তার হয়ে মানুষের সেবা করবে সে। পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য তার মায়ের অবদান সবচেয়ে বেশী উল্লেখ করে রওশান আরও জানান, বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সর্বাত্মক সহযোগিতা পেযেছে সে। মানুষের মত মানুষ হয়ে যেন মানুষের সেবায় সারা জীবন কাজ করে যেতে পারেন এজন্য রওশান সাইয়েরা সকলের দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।