মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি
মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

রাজনগরে সংঘর্ষে ৫ জন আহত, থানায় মামলা

রাজনগরে সংঘর্ষে ৫ জন আহত, থানায় মামলা
রাজনগরে সংঘর্ষে ৫ জন আহত, থানায় মামলা

দীর্ঘদিন পরে নড়িয়া উপজেলার রাজনগরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামীলীগের দুই পক্ষে উত্তেজনা শুরু হয়েছে। উভয় পক্ষের সমর্থকরা ককটেল ফাটিয়ে নিজেদের অবস্থান শক্ত করতে মরিয়া হয়েছে। ককটেলের আঘাতে উভয় পক্ষে ৫ জন আহত হয়েছে বলে এলাকাবাসী দাবী করছেন। পরিস্থিতি শান্ত রাখতে এলাকায় পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। নড়িয়া থানায় উভয় পক্ষে মামলা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, রাজনগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলীউজ্জামান মীরমালত ও বর্তমান চেয়ারম্যান জাকির কাজীর সমর্থকদের মাঝে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এই বিরোধের জেরে ইতোমধ্যে ইউনিয়ন যুবলীগ সদস্য মাইকেল ও ভ্যান চালক নাহিদকে হত্যা করা হয়। হত্যা মামলার আসামীরা হাতজে থাকা অবস্থায় অনেকদিন যাবৎ রাজনগর এলাকা শান্ত ছিল। আসামীরা জামিনে মুক্তি পেলে গত ১৫ মে শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজনগর সাতঘইরা কান্দি গ্রামে বর্তমান চেয়ারম্যান ও সাবেক চেয়ারম্যানের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এই ঘটনায় বর্তমান চেয়ারম্যানের সমর্থক আক্কাস মল্লিক, সোহেল মাদবর ও সাবেক চেয়ারম্যানের সমর্থক আকাশ মীর্জা সহ ৫ জন ককটেলে আহত হয়।
রাজনগর ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি আনোয়ার হোসেন মীর মালত বলেন, টিপু মাদবর নামে একজন শিল্পপতি সাবেক চেয়ারম্যানের পক্ষে এলাকায় দলবল করত। কিছুদিন ধরে টিপু মাদবর বর্তমান চেয়ারম্যানের পক্ষে চলে যায়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত শনিবার এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে পানি সম্পাদক উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম এর নির্দেশে এলাকায় পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। আমাকেও পুলিশের সাথে থেকে সহায়তা করার জন্য উপমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছে। আগামী ৭ দিন এলাকায় পালাক্রমে পুলিশ থাকবে। যেহেতু আওয়ামীলীগের মধ্যে নেতা-কর্মীদের দ্বন্দ্বের বিষয় তাই উপমন্ত্রী শামীম ভাই বিষয়টি মীমাংসা করবেন বলে জানিয়েছেন।
শিল্পপতি টিপু মাদবর বলেন, আসন্ন নির্বাচনে রাজনগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ার কথা বলতেই সাবেক চেয়ারম্যান আলীউজ্জামান মীর মালত আমাকে তার প্রতিপক্ষ ভাবতে শুরু করে। শনিবারের সংঘর্ষ হয়েছে মালত কান্দির পার্শ্ববর্তী সাতঘইরা কান্দি গ্রামে। সেখান থেকে দুই গ্রাম পরে আমার বাড়ি তাছাড়া এই বিষয়ে আমি কিছুই জানিনা। তবুও আমাকে এই ঘটনার সাথে জড়াতে চেষ্টা করা হচ্ছে।
নড়িয়া থানা অফিসার ইনচার্জ অবনী শংকর কর বলেন, এই ঘটায় ৫ জন আহত হয়েছে। উভয় পক্ষই মামলা করেছে। আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে এলাকায় পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।