শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি
শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

জপসায় স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্প পরিদর্শণ করলেন জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান

জপসায় স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্প পরিদর্শণ করলেন জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান
জপসায় স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্প পরিদর্শণ করলেন জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান

কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস মহামারি মোকাবেলায় নড়িয়া ও সখিপুরের মানুষের জন্য ফ্রি স্বাস্থ্যসেবা ও বিনামূল্যে ঔষধের ব্যবস্থা করেছেন শরীয়তপুর-২ আসনের এমপি ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম। ২৭ এপ্রিল নড়িয়া উপজেলার জপসা ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর আশ্রয়ণ কেন্দ্রে পৌঁছে যায় স্বাস্থ্যসেবা টিম। শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসাক মো. পারভেজ হাসান স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্প পরিদর্শণ করেছেন। ‘ডাক্তারের কাছে রোগী নয়, রোগীর কাছে ডাক্তার’ পৌঁছে যাওয়ার বিষয়টিকে সাধুবাদ জানিয়েছেন তিনি। এই সময় নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার জয়ন্তী রূপা রায়, নড়িয়া উপজেলা আওয়মীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকনসহ উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
নড়িয়া ও সখিপুরের প্রতিটি ইউনিয়নে পৌঁছে যাচ্ছে ভ্রাম্যমান মেডিকেলের এই ফ্রি স্বাস্থ্যসেবা টিম। তারই ধারাবাহিকতায় ২৬ এপ্রিল চিকিৎসাসেবা টিম পৌঁছে গেল নড়িয়া পৌরসভার লোনসিং এলাকায়। এই সময় তিন শতাধিক মানুষকে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা ও ঔধষ বিতরণ করা হয়। চিকিৎসা নিতে আসা লোকদের যাতায়াত ভাড়াও দিয়ে দেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রীর পক্ষ থেকে।
মেডিকেল টিমের দায়িত্বে রয়েছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. শওকত আলী ও ডা. মোবারক হোসেন সুজন। এই টিমে আরও রয়েছেন ২ জন সেবিকা ও ৪ জন স্বাস্থ্য সহকারী। সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত ২ শতাধিক রোগীকে বিনামূলে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করেন এই টিম।
বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা ও ঔষধ পেয়ে খুশি জপসা লহ্মীপুর আশ্রয়ণ এলাকার মানুষ। চিকিৎসা ক্যাম্প থেকে তারা জানায়, উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম এমপি গরীব মানুষের কথা চিন্তা করে ডাক্তার ও ঔষধ পাঠিয়েছেন। লকডাউনে আমরা ঘরে বসে রোগে ধুকছিলাম। এমন সময় এই সেবা ও ঔষধ আমাদের জন্য খুব প্রয়োজন ছিল। ঔষধের পাশাপাশি আমাদের যাতায়াতের ভাড়ার টাকাও দিয়েছে। আমরা উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম এমপির জন্য প্রাণখুলে দোয়া করি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।