মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি
মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নড়িয়ায় শিশুদের মারামারিতে জেলে মা, পালিয়ে বেড়াচ্ছে বাবা

নড়িয়ায় শিশুদের মারামারিতে জেলে মা, পালিয়ে বেড়াচ্ছে বাবা

দুই শিশুর ঝগড়া ও মারামারির ঘটনায় জেরে করা মামলায় এক শিশুর মা এখন কারাগারে। মামলার আরেক আসামি শিশুটির বাবা আটকের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। ঘটনাটি শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলা ভূমখারা এলাকার। মামলাটিকে হয়রানিমূলক বলে দাবি করেছেন শিশুটির স্বজনেরা।
নড়িয়া থানা ও গ্রামবাসী সূত্র জানায়, নড়িয়ার ভূমখারা গ্রামের বাসিন্দা নূরজাহান বেগমের স্বামী ইয়াছিন ছৈয়াল চট্টগ্রামে ফেরি করে কাপড় বিক্রি করেন। চার শিশু সন্তান নিয়ে তিনি গ্রামের বাড়িতে থাকেন। ৩ আগস্ট নূরজাহানের ছেলে মজনু (৯) ও মোজাম্মেলের (৮) সঙ্গে প্রতিবেশী সালাম বেপারীর ছেলে সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আবদুল আহাদের (১৪) ঝগড়া ও মারামারি হয়। তাদের মারামারিতে আহাদ মাথায় আঘাত পায়। ওই ঘটনার জের ধরে ওই দিন আহাদের বাবা আবদুস সালাম লোকজন নিয়ে মজনু ও মোজাম্মেল, তাদের মা নূরজাহান, দুই বোন বিথী ও সাথিকে মারধর করেন। এ ঘটনা উল্লেখ করে ওই দিন রাতেই নূরজাহান বেগম নড়িয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। কিন্তু পুলিশ অভিযোগটি নথিভূক্ত করেনি।
পরে ২১ আগষ্ট সালামের স্ত্রী শিউলি বেগম নড়িয়া থানায় নূরজাহান ও তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। মামলায় অভিযোগ করা হয়, নূরজাহান ও তাঁর স্বামী ইয়াছিন ছৈয়াল শিশু আবদুল আহাদকে মাথায় ধালাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন। ওই রাতেই নড়িয়া থানার পুলিশ নূরজাহানকে গ্রেপ্তার করে। পরের দিন তাঁকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।
নূরজাহানের অভিযোগটি নথিভূক্ত না করে তদন্ত করছিলেন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবিদ হাসান। তিনি মুঠো ফোনে বলেন, নূরজাহানের অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছিল। এমন অবস্থায় এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা ঘটনাটি মীমাংসা করে দেওয়ার কথা বলেন। এ কারণে তা আর নথিভূক্ত করা হয়নি।
নূরজাহানের স্বামী ইয়াছিন ছৈয়াল মুঠোফোনে জানান, তিনি মামলার আসামি হওয়ার ভয়ে গ্রামে যাচ্ছেন না।
নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, নূরজাহান যে অভিযোগ করেছিলেন, তাতে মারধরের কথা উল্লেখ ছিল। আর শিউলী বেগমের করা মামলায় তাঁর ছেলের মাথায় কোপানোর অভিযোগ ছিল। এ কারণে তাঁদের মামলাটি নথিভূক্ত করে নূরজাহানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।