শনিবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
শনিবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নড়িয়ার চিশতীনগরে ব্যতিক্রমী সাহিত্য প্রতিযোগিতা

নড়িয়ার চিশতীনগরে ব্যতিক্রমী সাহিত্য প্রতিযোগিতা

নড়িয়া উপজেলার চিশতীনগরে শিক্ষানুরাগী সুধীজন ও কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের সমন্বয়ে উর্দূ সাহিত্যের শ্রেষ্ঠ ঔপন্যাসিক কৃষণ চন্দর এর “ আমি গাধা বলছি” উপন্যাসের উপর প্রতিযোগিতা ও গবেষনাধর্মী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। চিশতীনগর শরীফিয়া লাইব্রেরির উদ্যোগে আজ বিকেলে ভিন্নধর্মী এই অনুষ্ঠান উদযাপিত হয়।
জানাগেছে, উর্দূ সাহিত্যের শ্রেষ্ঠ ঔপন্যাসিক কৃষণ চন্দর (১৯১৪-১৯৭৭) রচিত ও মোস্তফা হারুন অনূদিত “আমি গাধা বলছি” উপন্যাসের উপর একটি রিভিউ প্রতিযোগিতা ও ১৩ জন পাঠকের গবেষণাভিত্তিক আলোচনায় চিশতীনগর শরীফিয়া লাইব্রেরির মিলনায়তনে এক ব্যতিক্রমী সাহিত্যানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চিশতীনগর শরীফিয়া লাইব্রেরির পরিচালক প্রকৌশলী সৈয়দ গোলাম মুরসালিন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন পাঠকচক্রের সাধারণ সম্পাদক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শফিকুল ইসলাম শাওন। আহুত রিভিউ প্রতিযোগিতায় পাঠকচক্রের ৮ জন সদস্য “আমি গাধা বলছি” বইটির উপর ‘রিভিউ’ প্রেরণ করেন। একটি স্যাটায়ারিকেল উপন্যাসের মাধ্যমে কৃষন চন্দর উপমহাদেশের মানব সমাজের বিভিন্ন শৃস্খলন ও ত্রæটিগুলির নগ্ন চিত্র তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে অধ্যাপক, আইনজীবি, ছাত্রছাত্রীসহ বিভিন্ন বক্তাগণ গভীর বিশ্লেষনমূলক বক্তব্য পেশ করেন। রিভিউ নিরীক্ষণ প্যানেলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রথম ও দ্বিতীয় স্থান গ্রহনকারীকে পুরস্কৃত করা হয়। অন্যান্য যারা রিভিউ পাঠিয়েছেন তাদের সকলকে শুভেচ্ছা পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে।
উপস্থিত বক্তাগণ চিশতীনগর শরীফিয়া লাইব্রেরির পাঠকচক্রের এ কর্মসূচিকে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ বলে অভিহিত করেন। অত্যন্ত হৃদয়গ্রাহী পরিবেশে ব্যতিক্রমধর্মী এ অনুষ্ঠান বিস্ময়কর সাফল্য অর্জন করে।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।