মঙ্গলবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি
মঙ্গলবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সরকারী পূর্ব মাদারীপুর কলেজে এ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে লাগে জরিমানার টাকা

সরকারী পূর্ব মাদারীপুর কলেজে এ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে লাগে জরিমানার টাকা
ডামুড্যা পূর্ব মাদারীপুর কলেজ। ছবি-দৈনিক হুংকার।

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় সরকারী পূর্ব মাদারীপুর কলেজে এ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে প্রতি বিষয়ে ১০০ টাকা করে জরিমানা নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এতে করে ওই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। শিক্ষার্থীরা সময়মত এ্যাসাইনমেন্ট জমা না দেয়ার কারণে জরিমানা হিসেবে প্রতি বিষয়ে ১০০ টাকা করে আদায় করার কথা স্বীকার করেছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। অভিযোগ ওঠার পরে নিয়ম বিরোধী ভাবে আদায়কৃত টাকা ফেরত দেয়ার সিদ্ধান্তও নিয়েছেন তারা।
কলেজ ও শিক্ষার্থী সূত্রে জানা যায়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী এ্যাসাইনমেন্ট জমা দেয়ার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে কোন টাকা নেয়ার বিধান নাই। কলেজ কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের কলেজমূখী করার জন্য এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন বলে দাবী করেন। কিন্তু পূর্ব মাদারীপুর সরকারী কলেজের একাদশ শ্রেণির ৫৪১ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। তাদের ২০২২ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য প্রতি বিষয়ের এ্যাসাইনমেন্ট জমা নেয়ার সাথে ১০০ করে টাকা জমা দিতে হয়। এতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষার্থী জানান, দীর্ঘদিন যাবত করোনা মহামারীর কারণে আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এখন এ্যাসাইনমেন্টের নামে আমাদের কাজ থেকে ১০০ টাকা করে জরিমানা আদায় করছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এটা অমানবিক। করোনার জন্য কলেজ বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা অমনোযোগী হয়ে পড়েছে তার ওপর এ্যাসাইনমেন্ট জমার সময় টাকা নেয়া শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের উপর একটি বাড়তি চাপ বলে দাবী করেন এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক। তিনি আরও দাবী করেন যাহা আমাদের জন্য মরার উপর খড়ার ঘা।
সরকারী পূর্ব মাদারীপুর কলেজের সহকারী অধ্যাপক মকবুল হোসেন (মামুন) বলেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ছাত্র/ছাত্রীরা তাদের এ্যাসাইনমেন্ট জমা দিচ্ছে। জমা দেয়ার সংখ্যা খুবই কম। এ সংখ্যা বাড়াতে কলেজ কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্বান্ত। এটা তেমন অনিয়ম না।
সরকারী পূর্ব মাদারীপুর কলেজের অধ্যক্ষ মো. জহির উল্লাহ বলেন, আমরা কলেজের শিক্ষক পরিষদ শিক্ষার্থীদের এ্যাসাইনমেন্ট নিশ্চিত করার জন্য জরিমানা আদায়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তাও খুবই সামান্য। প্রতি বিষয়ের বিপরীতে ১০০ টাকা করে। এ বিষয়ে কারো আপত্তি থাকলে আমরা আর টাকা নিবো না। জরিমানার টাকা কেউ ফেরত চাইলে দিয়ে দেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।