বুধবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই রজব, ১৪৪২ হিজরি
বুধবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ডামুড্যায় ২ কেন্দ্রের ফলাফল স্থগিত হওয়ায় ভাগ্য নির্ধারণ হয়নি মেয়রসহ ৪ কাউন্সিলরের

ডামুড্যায় ২ কেন্দ্রের ফলাফল স্থগিত হওয়ায় ভাগ্য নির্ধারণ হয়নি মেয়রসহ ৪ কাউন্সিলরের
ডামুড্যা পৌরসভা নির্বাচনে ভোটারগণ তাদের ভোট প্রদানের জন্য সারিবদ্ধ ভাবে দাঁড়িয়ে আছেন। ছবি- দৈনিক হুংকার।

শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা পৌর নির্বাচনে ভোট গ্রহণের পরিবেশ না থাকার কারণে দুই কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করেছেন কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তারা। ৭টি কেন্দ্রের ফলাফলে মেয়র পদে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রেজাউল করিম রাজা ছৈয়াল বিপুল ভোটে এগিয়ে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন। বন্ধ হওয়া কেন্দ্র দুইটি হল ঠেংগার বাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কুলকুড়ি মজিদ মাদবরের বাড়ি ফোরকানিয়া মাদরাসা।
প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রবিবার দুপুর ২টার দিকে ২ নং ওয়ার্ড ঠেংগার বাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট দেয়াকে কেন্দ্র করে দুই সাধারণ কাউন্সিলের সমর্থকদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এর এক পর্যায়ে ইটপাটকেল ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এতে ৬ জন আহত হয়। এর পরপরই দুপুর ২.৩০ টার দিকে পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের কুলকুড়ি মজিদ মাদবরের বাড়ি ফোরকানিয়া মাদরাসা ভোট কেন্দ্র দখলের চেষ্টা করে প্রতিপক্ষের উশৃঙ্খল কর্মীরা। এতে সাধারণ ভোটাররা আতর্কিত হয়ে দিক বেদিক ছুটতে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ফাঁকা গুলি ছোড়ে ও অতিরিক্ত পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব ওই কেন্দ্রে অবস্থান নেয়।
নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে চারজন, সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর পদে ৯ জন ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩০জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। পৌরসভার মোট ১২ হাজার ২৫৯ ভোটের মধ্যে জগ প্রতিকে মোঃ রেজাউল করিম ৭টি কেন্দ্রে ৩৯৭৫ ভোট পেয়ে এগিয়ে আছেন। অপর দিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি নৌকা প্রতিকে মোঃ কামাল উদ্দিন আহমেদ ২৩২৬ ভোট পেয়েছেন।
বন্ধ হওয়া ঠেংগার বাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার ফয়জুল করিম বলেন, দুই সাধারণ কাউন্সিলর লোকমান হোসেন (উটপাখি) ও শাহ আলী গোলদার বাদল (পাঞ্জাবী) প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। বাকবিতন্ডের এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হলে পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকায় নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।
রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন আফিসার মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন বলেন, দুই কেন্দ্র ছাড়া বাকি সকল কেন্দ্রে সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণ ভাবে স্বাভাবিক নির্বাচন হয়েছে। দুইটি কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলার কারণে ওই কেন্দ্র গুলোর প্রিজাইডিং কর্মকর্তারা ভোট গ্রহণ স্থগিত করে দেন। দুইটি কেন্দ্রের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনে চিঠি দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত জানা যাবে।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।