শনিবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
শনিবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শরীয়তপুরে বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটরের সোয়া তিন কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলায় গ্রেফতার ১

নজরুল ইসলাম। ফাইফ ফটো।

শরীয়তপুরে বিবি ফাইনান্সের অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় মামলায় জয়নাল আবেদীন নামক এক আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। প্রধান আসামী নজরুল ইসলাম সহ ২ জন পলাতক রয়েছে। এর আগে গত ৪ জুন বিবি ফাইনান্সের জেনারেল ম্যানেজার জাকির হোসেন সুমন বাদী হয়ে পালং মডেল থানায় একটি মামলা করেন।
মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায় যে, শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলার তিলই গ্রামের মৃত সুলতান খানের ছেলে নজরুল ইসলাম খান, বিবি ফাইনান্সে (বিকাশ এজেন্ট) ক্যাশিয়ার হিসেবে কর্মরত থাকার কারণে সে আর্থিক লেনদেনের সাথে জড়িত ছিল। সম্প্রতি ৩ কোটি ১০ লাখ টাকা, একই মালিকের প্রতিষ্ঠান বিবি টেলিকমের একাউন্স অফিসার স্বপন কুমার দের কাছে জমা দেয়ার কথা বলে অফিস থেকে বের হন।
এর পর থেকে নজরুল আর অফিসে ফেরত আসেননি। পরে নজরুল ইসলামের বাড়ি গিয়ে তার বড় ভাই জয়নাল আবেদীন ও ভাবি সীমা খানমকে ঘটনা জানালে তারা নজরুল কে খুঁজ দেয়ার দায়িত্ব নেয়। কিন্তু তারা নজরুল কে খুঁজে বের করে দিতে তালবাহানা করেন ও সন্দেহজনক আচরণ করেন। এ ঘটনায় বিবি ফাইনান্সের জেনারেল ম্যানেজার জাকির হোসেন সুমন বাদী হয়ে পালং মডেল থানায় একটি মামলা করেন। গত ৭ জুন মামলার ৩ নং আসামী জয়নাল আবেদীনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।
এ ব্যাপারে মামলার বাদী বিবি ফাইনান্সের জেনারেল ম্যানেজার জাকির হোসেন সুমন বলেন, নজরুল কোম্পানীর টাকা আত্মসাত করে
কোম্পানীর সাথে বিশ্বাস ঘাতকাতা করেছে যার কারণে টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য মামলা করেছি, অবিলম্বে সকল আসামীদের গ্রেপ্তার দাবী করছি।
এ ব্যাপারে পালং থানার ওসি (তদন্ত) আশরাফুল ইসলাম বলেন, বিবি ফাইনান্সের অর্থ আত্মসাতের মামলায় একজন কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।