মঙ্গলবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি
মঙ্গলবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ডামুড্যায় ১৭ মাস পর বিদ্যালয়ে ক্লাস শুরু

ডামুড্যায় ১৭ মাস পর বিদ্যালয়ে ক্লাস শুরু
ডামুড্যা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদানরত শিক্ষার্থীরা। ছবি-দৈনিক হুংকার।

দীর্ঘ অপেক্ষা আর শঙ্কার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে প্রায় দেড় বছর পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রেণিকক্ষের দ্বার খোলায় দপ্তরির হাতুড়িতে বেজে ওঠেছে ঘন্টার আওয়াজ। সারা দেশের ন্যায় শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি নির্দেশনা মেনে পাঠদান শুরু করেছে।
রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকেই শিক্ষার্থীদের উৎসাহ উদ্দীপনায় মুখরিত হতে থাকে বিদ্যালয় ও কলেজ গুলো।
করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে গেল বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়েছিল। সংক্রমণ কিছুটা কমে আসায় প্রথম ধাপে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলেছে ১২ সেপ্টেম্বর থেকে। এদিকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনা করতে এরইমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে সংশ্লিষ্টরা।
সরজমিনে উপজেলার ১ নং ডামুড্যা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ঘুরে দেখা যায়, প্রতিষ্ঠানের প্রবেশমুখে সারিবদ্ধভাবে শিক্ষার্থীদের হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে। শিক্ষার্থীরাও অনেকদিন পর শিক্ষাঙ্গনে ফিরতে পেরে উদ্বেলিত, কথা হয় তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থী উম্মে সায়মার সাথে কমলমতি এ শিশু শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে আসতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করে।
সরকারি ডামুড্যা মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থী নাদিরা রোববার সকালে ক্লাসে এসে বান্ধবীদের জড়িয়ে ধরে আনন্দে বিমোহিত। সে জানায়, ঘরে বসে মনমরা হয়ে গেছি। আজকে মনে হচ্ছে ঈদের দিন।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ আব্দুল মজিদ বলেন, শিক্ষার্থীদের উৎসাহ দেখে মনে হচ্ছে খাঁচা থেকে মুক্ত পাখি তারা। একে অপরের সঙ্গে আনন্দের অনুভূতি ভাগাভাগি করছে। তবে অবশ্যই স্বাস্থ্য বিধির বিষয়ে যথাযথ নজর রাখা হয়েছে।
সরকারি পূর্ব মাদারীপুর কলেজের অধ্যক্ষ জহির উল্ল্যাহ বলেন, সরকারের ঘোষিত সব ধরণের স্বাস্থ্যবিধি মেনে পাঠদানের জন্য পূর্ব প্রস্তুতি নেওয়া ছিল। রোববার থেকে যথারীতি ক্লাস চলবে। দীর্ঘদিন পর শিক্ষার্থীদের কলতানে মুখরিত শ্রেণিকক্ষের দৃশ্য দেখে শিক্ষকদের মধ্যেও কর্মচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এসএম গিয়াস উদ্দিন বলেন, ইতোমধ্যে উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে সরকারের নির্দেশনা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। এছাড়াও বিদ্যালয় চলাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে মনিটরিং করা হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।