বৃহস্পতিবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বঙ্গমাতা ছিলেন সংকটে-সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর নির্ভীক সহযাত্রী:পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

Auto Draft
নড়িয়া উপজেলা ও সখিপুর থানা মহিলা আওয়ামীলীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ। ছবি-দৈনিক হুংকার।

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম এমপি বলেছেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছিলেন সংকটে-সংগ্রামে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্ভীক সহযাত্রী। ছোটবেলায় তাঁর বাবা-মা মারা যায়। এরপর থেকে স্বামী-সন্তান-শ্বশুর-শাশুড়িই ছিলো তার সবকিছু। বঙ্গবন্ধু যখন জেলে থাকতেন তখন বঙ্গমাতা সন্তান লালন-পালন, শ্বশুর-শাশুড়ীর লোকজনের সেবাযত্ন করার পাশাপাশি আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের দেখভাল করতেন। ছাত্রলীগকে তিনি বিশেষভাবে দেখাশুনা করতেন ও বঙ্গবন্ধুর অবর্তমানে ছাত্রলীগকে সকল প্রকার দিকনির্দেশনা দিতেন। তাদের আর্থিক সহায়তাও করতেন। বঙ্গবন্ধুর সকল সংগ্রামেই তিনি পাশে থেকে অনুপ্রেরণা দিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু জেলে থাকাকালিন সময়ে গোয়েন্দা নজরদারি এড়িয়ে বঙ্গবন্ধুকে সকল খবরাখবর জানাতেন। তিনি একজন রাষ্ট্রপতির স্ত্রী হয়ে সাধারণ জীবনযাপন করতেন। এমনকি তাঁর সন্তানদেরকেও সেইভাবে আর্দশ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলেছিলেন। বঙ্গবন্ধু হত্যার পরে বঙ্গমাতার ব্যাংক হিসেবেও কোনো অর্থ পাওয়া যায়নি। খোকা থেকে মুজিব, মুজিব থেকে বঙ্গবন্ধু এবং বঙ্গবন্ধু থেকে জাতির পিতা হয়ে ওঠার পেছনে যে নারীর অবদান অনস্বীকার্য; তিনি হলেন, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব। বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গমাতার কাছ থেকে পরিশুদ্ধ বাঙালি হওয়া এবং মানবিকতার মা হবার শিক্ষা পেয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গমাতার কাছে থেকেই নারীর মর্যাদা প্রতিষ্ঠা করার অনুপ্রেরণা পেয়েছেন। একজন আদর্শ নারী হিসেবে বঙ্গমাতা সারাবিশ্বে অতুলনীয়।
বঙ্গমাতার ৯১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রোববার বিকেলে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলা ও সখিপুর থানা মহিলা আওয়ামীলীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
এতে অংশগ্রহণ করেন, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য তাহমিনা খাতুন শিলু, নড়িয়া উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রাবেয়া আক্তার, সাধারণ সম্পাদক সামসুন্নাহার মায়া, উপজেলা মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান নাজমা মোস্তফা, সখিপুর থানা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ারা বেগম, সাধারণ সম্পাদক সালমা বেগম, সখিপুর থানা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি কোহিনুর সুলতানা দোলা, ভেদরগঞ্জ উপজেলা মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান আকলিমা বেগম লিপি প্রমূখ।
এনামুল হক শামীম আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্বের কারণেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তাঁর নেতৃত্বে অর্থনীতি, মানবসম্পদ, অবকাঠামো, নিরাপত্তা, রাষ্ট্র ব্যবস্থাপনা, নারী ক্ষমতায়ন থেকে শুরু করে এমন কোনও ক্ষেত্র নেই যেখানে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতেও শেখ হাসিনার সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি সততায় সেরা, মেধায় সেরা, দক্ষতায় সেরা। সেরাদের সেরা প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।
আজকের এই দিনে আল্লাহর কাছে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতার আত্মার মাগফিরাত কামনা করি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।