মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি
মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সখিপুরে গো-হাটের স্বাস্থ্যবিধি পালনে তৎপর উপজেলা প্রশাসন

সখিপুরে গো-হাটের স্বাস্থ্যবিধি পালনে তৎপর উপজেলা প্রশাসন
তারাবুনিয়া আব্বাস আলী হাইস্কুল মাঠে গরুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানভীর আল নাসীফ এর অভিযান। ছবি-দৈনিক হুংকার।

ভেদরগঞ্জ উপজেলার অন্যতম গো-হাট তারাবুনিয়া আব্বাস আলী হাইস্কুল মাঠে গরুর হাটে আগত ক্রেতা-বিক্রেতাদের স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে সকাল থেকেই তৎপর ছিল ভেদরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন ও সখিপুর থানা পুলিশ। মঙ্গলবার (৬ জুলাই) সকাল থেকে হাটের দুইটি প্রবেশ মুখে মাস্ক, হ্যান্ডস্যানেটাইজার নিয়ে কাজ করেছে ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানভীর আল নাসীফ ও জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার অভিজিৎ সুত্রধর এর নেতৃত্বে পৃথক পৃথক দুইটি টিম। এর ফলে শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের পাশাপাশি গরু হাটে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সমাগম সীমিত ছিল। এসময় হাটের ইজারাদার ও সাবেক চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ইউনুস মোল্যার নেতৃত্বে পৃথক আরেকটি টিমও হাটে আগতদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কাজ করেছে।
ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানভীর আল নাসীফ জানান, আসন্ন কুরবানী ঈদ উপলক্ষে জেলা ও উপজেলার খামারীরা একটি বছর তাদের গরু লালন পালন করে বিক্রির জন্য অপেক্ষায় আছে। আবার যারা কুরবানী করবেন তারাও গরু ক্রয় করার জন্য বাজারে আসছেন। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি না মানলে দিন দিন যেভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে আমাদের পরিস্থিতি ভয়াবহ হবে। তাই আমরা মানুষ বাঁচানোর জন্যই প্রবেশ পথ সংকীর্ন করে ক্রেতা-বিক্রেতার সমাগম হ্রাসের পাশাপাশি তাদের মাস্ক পরিধান ও হ্যান্ডস্যানেটাইজ করার ব্যবস্থা নিয়েছি। এভাবে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন করতে ব্যর্থ হলে আমরা প্রয়োজনে হাট বন্ধ করে দিতে বাধ্য হবো। তাই মানুষকে বাঁচার সুযোগ দিয়ে তাদের জীবিকা সচল রাখার জন্য সবাইকে সচেতন হয়ে কাজ করতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।