শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন ভাবনার অন্তর্ভুক্তিমূলক চেতনার ফসল আশ্রয়ণ: পরিচালক মোঃ আসাদুজ্জামান

ভেদরগঞ্জ উপজেলার ডিএমখালি ইউনিয়নের আশ্রয়ণ প্রকল্প পরির্দশণ করছেন পরিচালক মো: আসাদুজ্জামান। ছবি-দৈনিক হুংকার।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ প্রকল্পের পরিচালক-১২ মোঃ আসাদুজ্জামান বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন ভাবনার অন্তর্ভুক্তিমূলক চেতনা থেকে গ্রহণ করা হয়েছে আশ্রয়ণ প্রকল্প। এ প্রকল্পের মাধ্যমে গৃহায়নের সঙ্গে কর্মসংস্থান, স্বাস্থ্যসেবা, স্যানিটেশন, শিক্ষা, পেশাভিত্তিক প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন কার্যক্রম যুক্ত হয়েছে। একটি গৃহ কিভাবে সামগ্রিক পারিবারিক কল্যাণে এবং সামাজিক উন্নয়নের প্রধান হাতিয়ার হতে পারে তার অনন্য দৃষ্টান্ত ‘আশ্রয়ণ’ প্রকল্প।
তিনি ২৪ সেপ্টেম্বর (শনিবার) শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার ডিএমখালি ইউনিয়নের আশ্রয়ণ প্রকল্পে বসবাসরত পরিবারের আয়বর্ধক কার্যক্রম ও তাদের জীবনমানের পরিবর্তন সহ সার্বিক অবস্থা সরেজমিন পরির্দশনে এসে এ কথা বলেন।
এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ সাইফুদ্দিন গিয়াস, ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ আল মামুন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ ইমামুল হাফিজ নাদিম।
পরিচালক আরো বলেন. শুধু গৃহ নির্মাণের ফলে মানুষের জীবনের টেকসই উন্নয়নের নানামুখী লক্ষ্য অর্জন সম্ভব। গৃহায়নের সঙ্গে সঙ্গে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা, ক্ষমতায়ন, নারীর অধিকার প্রাপ্তি যেমন সম্পৃক্ত তেমনি অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নের ক্ষেত্রসমূহেও ইতিবাচক পরিবর্তন সম্ভব।
২০৩০ সালের মধ্যে সকল নারী ও পুরুষ বিশেষ করে দরিদ্র ও অরক্ষিত (সংস্থাপন) জনগোষ্ঠীর অনুকূলে অর্থনৈতিক সম্পদ ও মৌলিক সেবা-সুবিধা, জমি ও অপরাপর সম্পত্তির মালিকানা ও নিয়ন্ত্রণের কথা বলা হয়েছে। একই সঙ্গে ক্ষুদ্রঋণসহ আর্থিক সেবা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে সমঅধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রত্যয় ঘোষণা করা হয়েছে।
পরিচালক ডিএমখালি ইউনিয়নের আশ্রয়ণ প্রকল্পে বসবাসরত পরিবারের আয়বর্ধক কার্যক্রম, তাদের জীবনমানের পরিবর্তন দেখে ভেদরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন কে ধন্যবাদ জানান এবং চলমান ভূমিহীন গৃহহীনদের জন্য গৃহ নির্মাণ কাজ দ্রুত এগিয়ে নেবার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।