শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭ সফর ১৪৪৪ হিজরি
শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

আগামীকাল থেকে ভেদরগঞ্জে টিসিবি এবং ওএমএস এর চাল বিক্রি শুরু

আগামীকাল থেকে ভেদরগঞ্জে টিসিবি এবং ওএমএস এর চাল বিক্রি শুরু
ভেদরগঞ্জে ওএমএস ও টিসিবি খাদ্য বিক্রি বিষয়ে অবহিতকরণ সভায় বক্তব্য রাখছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন। ছবি-দৈনিক হুংকার।

সম্প্রতি মূল্যস্ফীতির কারণে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত চালের মূল্য সহনিয় পর্যায় রাখার লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এঁর নির্দেশনা অনুযায়ী সারা দেশের ন্যায় শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেরায়ও ১ সেপ্টেম্বর থেকে ১৫ টাকা ও ৩০ টাকা দরে টিসিবি এবং ওএমএস সুবিধা ভোগীদের মাঝে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর আওতায় চাল বিতরণ করা হবে।
৩১ আগস্ট বুধবার ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের শহীদ আক্কাস-শহীদ মহিউদ্দিন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত অবহিতকরণ সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ আল মামুন এ তথ্য জানান।
এ সময় নবাগত সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ ইমামুর হাফিদ নাদিম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুর মান্নান বেপারী, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মাহাসুদুল হাসান সিকদার।
এবার ওএমএস ডিলার প্রতি ১ মেট্রিক টন চালের পরিবর্তে ২ মেট্রিকটন বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে। ওএমএস এর মাধ্যমে বিতরণ করা প্রতি কেজি চালের মূল্য হবে ৩০ টাকা। ওএমএস কার্যক্রমে টিসিবি’র কার্ডধারীদের সমন্বয় করে খাদ্যশষ্য বিতরণের লক্ষে চাল বিক্রয় করার জন্য ক্রেতাদের পৃথক ২টি লাইন থাকবে। টিসিবির কার্ডধারীরা এক পাশে সাধারণ ক্রেতা আর এক পাশে দাঁড়াবে। ওএমএস কেন্দ্রে টিসিবির কার্ডধারীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
টিসিবির কার্ড দেখিয়ে টিসিবির কার্ডধারীরা আর জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে সাধারণ ক্রেতারা ৫ কেজি করে ২ বার চাল কিনতে পারবেন। একই ব্যক্তি যেন বার বার চাল কিনতে না পারে সেটা নিশ্চিত করা হবে। খাদ্যবান্দব কর্মসুচীতে ডিজিটাল ডিভাইজ ব্যবহার করে সুবিধাভোগী প্রতি পরিবারকে স্মাট কার্ডের মাধ্যমে ১৫ টাকা কেজি দরে মাসে একবার ৩০ কেজি চাল কিনতে পারবেন। তিনি জানান ভেদরগঞ্জ উপজেলায় ১৩ হাজার ৪৬২ জন ও ওএমএসের আওতায় ৬০০ জন প্রতিদিন ৫ কেজি করে চাল ক্রয় করতে পারবেন এ জন্য ১৪ জন ওএসএস ও ৭ জন টিসিবি ডিরার নিয়োগ করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।