শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি
শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

আমনের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি

আমনের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি
ভেদরগঞ্জে আমন ধান কর্তন করছেন কৃষক। ছবি-দৈনিক হুংকার।

শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলায় এবার আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। উপজেলার ১৩ ইউনিয়নে এখন ধান কাটার ধুম পরেছে। চলছে মাড়াই ও শুকানোর কাজ। কৃষকের বাড়ির উঠোনে এখন শুধু ধান আর ধান। ফলন ভালো হওয়ায় হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে।
উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে জানা যায়, বিভিন্ন এলাকায় হাইব্রিড ও উফসী জাতের আমনের বীজ বপন করা হয়েছিল। আবার কিছু কিছু এলাকায় স্থানীয় জাতের আমনের চাষও হয়েছে। সব জাতের ধানেরই এ বছর ভালো ফলন হয়েছে।
উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের ঠাকুরদা কান্দি গ্রামের কৃষক আলমগীর বলেন, আমন ধানের এবার বাম্পার ফলন হয়েছে। বাজারে ধানের দামও আশানুরূপ। ভালো ফলন হওয়ায় কৃষক হিসেবে আমি খুশি ।
ভেদরগঞ্জ উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানায়, জেলার ছয় উপজেলায় আমন ধানের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৮ হাজার ১৪৮ মেট্রিক টন। আর আবাদের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয় এক লাখ ১ হাজার ৯৪৮ হেক্টর জমি। এবার চাষ হয়েছে এক লাখ ২ হাজার ১০২ হেক্টর। এখন পর্যন্ত জেলায় ৫০ ভাগ আমন ধান কর্তন হয়েছে। সেই সাথে চলছে উঠোনে উঠোনে মাড়াই ও ঝারাইয়ে কাজ।
উপজেলা কৃষি অফিসার ফাতেমা ইসলাম বলেন, ‘চলতি আমন মৌসুমে ফসলের লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রমের পিছনে অনুকূল আবহাওয়া, সরকারে প্রণোদনা বিনামূল্যে বীজ সার সেই সাথে কৃষি বিভাগ থেকে চাষিদের নতুন নতুন জাতের ধান চাষের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, এবার ভেদরগঞ্জ উপজেলার সরকারি ধান কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য ইউনিয়ন পর্যায়ে প্রকৃত কৃষকের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। সঠিক ভাবে তারা ধান বিক্রি করতে পারবে ও কৃষক ন্যায্যমূল্য পাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।