শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি
শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মা ইলিশ রক্ষায় সবাইকে সজাগ থাকতে হবে: জেলা প্রশাসক

মা ইলিশ রক্ষায় সবাইকে সজাগ থাকতে হবে: জেলা প্রশাসক
ভেদরগঞ্জের চরসেন্সাসে জেলেদের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করছেন জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান। ছবি-দৈনিক হুংকার।

শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান বলেছেন, বাংলায় অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি প্রবাদ বাক্য আছে-‘মাছে-ভাতে বাঙালি’। এ প্রবাদ বাক্যটির দ্বারা স্পষ্টভাবে উপলব্ধি করা যায় বাঙালি জাতির সঙ্গে মাছ ও ভাতের সম্পর্ক কতটা অবিচ্ছেদ্য। আমাদের জাতীয় মাছ ইলিশ। বাঙালির সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের ধারক ইলিশ।
বাংলাদেশের ইলিশ মাছ ভৌগোলিক নির্দেশক বা জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পায়, যার মাধ্যমে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে চিরদিনের জন্য স্থান পেয়েছে বাংলার ইলিশ।
মা ইলিশ নিধন রোধে এবং ইলিশের অবাধ প্রজনন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় ৪ অক্টোবর থেকে ২২ দিন অর্থাৎ ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশ প্রজনন এলাকায় সব ধরণের মাছ ধরা বন্ধ রয়েছে। জাতির পিতার কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এ জন্য জেলেদের কে মাথা পিছু ২০ কেজি করে চাউল দিচ্ছে। সরকারের এ উদারতাকে সম্মান প্রর্দশণ করে ২২ দিন নদীতে মাছ না ধরার জন্য জেলেদের প্রতি আহবান জানান জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান। এ সময় তিনি মা ইলিশ রক্ষায় সবাইকে সজাগ থাকার জন্য বলেন।
তিনি বলেন, সারা দেশে মতো আমাদের শরীয়তপুর জেলায়ও ২২ দিন ইলিশ মাছের আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ এবং কেনাবেচা নিষিদ্ধ রয়েছে। যারা এ নির্দেশ অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
নিষেধাজ্ঞা অমান্যকারীকে ১ বছর থেকে সর্বোচ্চ ২ বছর সশ্রম কারাদণ্ড অথবা পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা যাবে। ১৬ অক্টোবর শনিবার দুপুরে চরসেন্সাস ইউনিয়ন পরিষদের সামনে থেকে ভেদরগঞ্জ উপজেলার চরসেনসাস ইউনিয়নে ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান উপলক্ষে জেলেদের মাঝে ভিজিএফের চাউল বিতরণ কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এসব কথা বলেন।
ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানভীর আল নাসীফ এর সভাপতিত্বে বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চরসেন্সাস ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোঃ জিতু মিয়া বেপারী, সহ-সভাপতি মাস্টার আবুল হোসেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মফিজুল হক মাদবর, শ্রমিকলীগ নেতা শাহাদাত হোসেন সরদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আবু সাঈদ মোল্যা প্রমূখ।
এর পরে জেলা প্রশাসক চরসেন্সাস ইউনিয়ন পরিষদ, সখিপুর ‘খ’ ইউনিয়ন ভূমি অফিস ও ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার এর পরিদর্শন এবং বৃক্ষরোপণ করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।