শুক্রবার, ১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি
শুক্রবার, ১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বসুন্ধরার এমডি’র দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

বসুন্ধরার এমডি’র দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা
বসুন্ধরার এমডি’র দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবাহান আনভীরের (৪২) দেশত্যাগের ওপর গতকাল মঙ্গলবার আদালত নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন। গুলশানের একটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট থেকে মোসারাত জাহান মুনিয়া (২১) নামের এক সুন্দরী তরুনীর লাশ উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সায়েম সোবহান আনভীর একজন আসামি। পুলিশ তার দেশত্যাগের নিষেধজ্ঞা চেয়ে গতকাল মঙ্গলবার আদালতে আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত তা মঞ্জুর করেন। তরুনীর লাশ উদ্ধার নিয়ে সোমবার গুলশান থানা আত্মহত্যায় প্ররোচনা মামলা হবার পর পুলিশের কাছে খবর ছিলো তিনি বিদেশে পালিয়ে যেতে পারেন। তাই সায়েম সোবহান আনভীরের বিদেশ যাত্রার ওপর নিষেধজ্ঞা চেয়ে মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে গতকাল মঙ্গলবার আবেদনটি করে পুলিশ। এদিকে পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, সায়েম সোবহান যাতে দেশ ছাড়তে না পারেন অভিবাসন কর্তৃপক্ষকেও সে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হয়েছে। ফ্ল্যাট থেকে মুনিয়ার লাশ উদ্ধারের পর তার লেখা ডায়েরি, সিসিটিভি ফুটেজ জব্দ করেছে পুলিশ। মুনিয়ার পরিবারের দাবী দুই বছরের বেশি সময় ধরে আনভীরের সঙ্গে তার গভীর সম্পর্ক। গুলশানের ওই ফ্ল্যাটেই আনভীর আসা যাওয়া করতেন। তবে এপ্রিল মাসের একটি ইফতার পার্টিকে ঘিরে তাদের সম্পর্কের অবনতি ঘটে। এই ঘটনা মুনিয়া তার বোনকে ফোনে জানিয়েছিলেন বলে তিনি সাংবাদিকদের কাছে উল্লেখ করেন। এদিকে মামলার এজাহার গ্রহণ করে ঢাকা মেট্ট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট শহিদুল ইসলাম আগামী ৩০ মে মামলার প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তাকে। বসুন্ধরা গ্রুপের এমপি আনভীরের ঘনিষ্ঠ বান্ধবী মুনিয়ার লাশ উদ্ধারের ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় চলছে, অনেকে তার অতিত কর্মকান্ড নিয়েও মন্তব্য করছেন। এই ঘটনায় দেশি এবং আন্তর্জাতিক মিডিয়া বিবিসি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। পুলিশ জানিয়েছে, তারা যথাযথ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। সূত্রে জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যার পর গুলশান-২ এর একটি ফ্ল্যাট থেকে মোসারাত জাহান (মুনিয়া) নামে এক তরুনীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই তরুনীর বোন নুসরাত জাহান বাদী হয়ে গুলশান থানায় মামলাটি করেন। এই মামলার একমাত্র আসামি বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর। পুলিশ জানিয়েছে, এই মামলায় তারা আনভীরকে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন। এ বিষয়ে জানতে সায়েম সোবহান আনভীরের মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করলে তা বন্ধ থাকায় তার কোন মতামত পাওয়া যায়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।