রবিবার, ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে শাবান, ১৪৪২ হিজরি
রবিবার, ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

পাগলের হাতে ২ কৃষক খুন: আহত-১

পাগলের হাতে ২ কৃষক খুন: আহত-১
পাগলের হাতে ২ কৃষক খুন: আহত-১

ইউনুস আলী (২৮) নামে এক পাগলের ছুরিকাঘাতে ২ কৃষক খুন হয়েছে এবং একজন মারাত্মকভাবে আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বুধবার সকালে নরসিংদী সদর উপজেলার নজরপুর ইউনিয়নস্থ ছগরিয়ারপাড়া গ্রামে। পুলিশ এবং এলাকাবাসী জানায়, ঐ গ্রামের প্রবাসী আব্দুল মান্নানের ছেলে ইউনুস আলী বেশ কিছুদিন যাবৎ মানসিক ভারসাম্যহীন অবস্থায় চলাফিরা করত। ঘটনার দিন সকাল আনুমানিক ৯টার সময় ইউনুস আলী তার মা’র সাথে ঝগড়া হয় এক পর্যায়ে ধারালো ছুরি দিয়ে মাকে আঘাত করতে গেলে ইউনুসের মা পাশ্ববর্তী বাড়িতে গিয়ে প্রাণরক্ষা করে। পরবর্তীতে ইউনুস আলী একটি ছুরি ও রামদা নিয়ে বাড়ির পাশে ঘাষ খাওয়া অবস্থায় একটি ছাগলকে কুপিয়ে টুকরো টুকরো করে মেরে ফেলে। এঘটনা দেখতে পেয়ে বাড়ির পাশ্ববর্তী আলী আকবর (৬৮) ঘটনাস্থলে আসলে তাকে ইউনুস আলী এলোপাতারী ভাবে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে মারাত্মক ভাবে আহত করে। এসময় পাশ্ববর্তী বাড়ির ফরহাদ (৫৫) ঘটনাস্থলে দৌড়ে আসলে ইউনুস আলী তাকেও এলোপাতারীভাবে কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে এবং সাথে সাথেই ফরহাদ মারা যায়। এদেরকে দেখার জন্য সেন্টু মিয়া (৬০) নামে এক ব্যক্তি ঘটনাস্থলে আসলে ইউনুস তাকেও এলোপাতারীভাবে ছুরিকাঘাতে মারাত্মকভাবে আহত হয়। পরে এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ইউনুস আলীকে ধরার চেষ্টা করলে ইউনুস দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে এলাকাবাসী চারদিক ঘেরাও করে ঘাতক ইউনুস আলীকে আটক করতে সক্ষম হয় এবং গণপিটুনী দিয়ে তাকে পুলিশের নিকট সোর্পদ করে। এদিকে মুমুর্ষ অবস্থায় সেন্টু মিয়াকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। তার অবস্থা আশংকাজনক বলে কর্তব্যরত ডাক্তার জানিয়েছেন। খবর পেয়ে নরসিংদী সদর মডেল থানা পুলিশ নিহত ব্যক্তিদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। নজরপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মাদল সরকারের সাথে আলাপ করলে তিনি জানান, ইউনুস আলী দীর্ঘদিন যাবৎ মানসিক রোগে ভুগছিল। ইউনুস আলীর মা ফজিলাতুন্নেছা জানান, তার স্বামী দেওয়ান আলী হাজী বেশ কয়েক বছর যাবৎ সৌদি আরবে চাকুরি নিয়ে বসবাস করছে। অনেক সময় মাদকের টাকার জন্য ইউনুস আলী তার মাকে চাপ সৃষ্টি করত এবং টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে সে তাকে মারধর করত। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।