শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭ সফর ১৪৪৪ হিজরি
শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

১২ বছর পর দিল্লীতে হতে যাচ্ছে জেআরসি’র সভা

১২ বছর পর দিল্লীতে হতে যাচ্ছে জেআরসি’র সভা
শরীয়তপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম সহ প্রতিনিধি দলের সদস্যরা নয়া দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌঁছলে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা তাদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। ছবি-দৈনিক হুংকার।

প্রায় ১২ বছর পর ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লীতে ভারত-বাংলাদেশের যৌথ কমিশন-জেআরসি’র সভা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার ভারতীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় দুই দেশের মন্ত্রী পর্যায়ে ২ দিন ব্যাপী ৩৮তম জেআরসি সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে সূত্রে জানা গেছে।
এদিকে, বুধবার দুপুরে শরীয়তপুরের কৃতিসন্তান, শরীয়তপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম সহ প্রতিনিধি দলের সদস্যরা নয়া দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌঁছলে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা তাদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এছাড়াও বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক, সচিব ও ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৭ সদস্যের প্রতিনিধি দল রয়েছেন।
এদিকে, সর্বশেষ মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকটি ২০১০ সালের মার্চে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন ভারত সফরকে সামনে রেখে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে সূত্র জানিয়েছে।
সূত্র গুলো অবশ্য বলেছে যে, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ছয়টি অভিন্ন নদী-মনু, মুহুরী, খোয়াই, গোমতী, ধরলা ও দুধকুমারের একটি কাঠামো চুক্তি চূড়ান্ত করার পাশাপাশি বৈঠকে দীর্ঘ প্রতীক্ষিত তিস্তা ইস্যুটি উত্থাপন করার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া গঙ্গার পানি বণ্টন চুক্তি নবায়ন সংক্রান্ত বিষয়গুলোও বৈঠকে গুরুত্বের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।
১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ২৫ বছরব্যাপী গঙ্গার পানি বণ্টন চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে আগামী ২০২৬ সালে। ভারত ও বাংলাদেশ এ পর্যন্ত শুধুমাত্র গঙ্গার পানি বণ্টন চুক্তি স্বাক্ষর করেছে, যদিও তাদের মধ্যে ৫৪টি আন্তঃসীমান্ত নদী রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।