রবিবার, ২ অক্টোবর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
রবিবার, ২ অক্টোবর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

অর্থদন্ড দিচ্ছে তবুও মাস্ক ব্যবহার করছেনা অনেকে

শরীয়তপুর সদর উপজেলা বিভিন্ন এলাকায় মাস্ক না পরে ঘোরাফেরা করা ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে অর্থদন্ড দিচ্ছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মাহাবুর রহমান শেখ। ছবি-দৈনিক হুংকার।

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥ শরীয়তপুরে ৩০০ থেকে হাজার টাকা পর্যন্ত অর্থদন্ড দিতে রাজি থাকে তবুও ২০ টাকা দামের মাস্ক ব্যবহার করে স্বাস্থ্য বিধি মানতে নারাজ অনেকেই। প্রশাসন জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও স্বাস্থ্যবিধি রক্ষার্থে প্রতিদিনই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করছেন।
৯ জুন বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত শরীয়তপুর সদর উপজেলায় পালং বাজার, চৌরঙ্গী মোড়, কোর্ট মোড়, মনোহর বাজার, আংগারিয়া বাজার ও গুরুত্বপূর্ণ সড়কে করোনা নিয়ন্ত্রন ও জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মাস্ক পরিধান ও শারীরিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এসময় সরকারি আদেশ অমান্য করে অপ্রয়োজনে মাস্ক বিহীন বাইরে ঘোরাফেরা করার দায়ে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ২৩ জনকে ৯ হাজার ৮০০ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।
ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহাবুর রহমান শেখ বলেন, কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ভ্রাম্যমান আদালত সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি রক্ষা, সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করা এবং মাস্ক ব্যবহার না করে অপ্রয়োজনে বাইরে ঘোরাফেরা করা ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা হচ্ছে। করোনা নিয়ন্ত্রনে ও জনস্বার্থে এই অভিযান অব্যহত থাকবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।