রবিবার, ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে শাবান, ১৪৪২ হিজরি
রবিবার, ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

অর্থদন্ড দিচ্ছে তবুও মাস্ক ব্যবহার করছেনা অনেকে

শরীয়তপুর সদর উপজেলা বিভিন্ন এলাকায় মাস্ক না পরে ঘোরাফেরা করা ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে অর্থদন্ড দিচ্ছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মাহাবুর রহমান শেখ। ছবি-দৈনিক হুংকার।

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥ শরীয়তপুরে ৩০০ থেকে হাজার টাকা পর্যন্ত অর্থদন্ড দিতে রাজি থাকে তবুও ২০ টাকা দামের মাস্ক ব্যবহার করে স্বাস্থ্য বিধি মানতে নারাজ অনেকেই। প্রশাসন জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও স্বাস্থ্যবিধি রক্ষার্থে প্রতিদিনই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করছেন।
৯ জুন বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত শরীয়তপুর সদর উপজেলায় পালং বাজার, চৌরঙ্গী মোড়, কোর্ট মোড়, মনোহর বাজার, আংগারিয়া বাজার ও গুরুত্বপূর্ণ সড়কে করোনা নিয়ন্ত্রন ও জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মাস্ক পরিধান ও শারীরিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এসময় সরকারি আদেশ অমান্য করে অপ্রয়োজনে মাস্ক বিহীন বাইরে ঘোরাফেরা করার দায়ে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ২৩ জনকে ৯ হাজার ৮০০ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।
ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহাবুর রহমান শেখ বলেন, কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ভ্রাম্যমান আদালত সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি রক্ষা, সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করা এবং মাস্ক ব্যবহার না করে অপ্রয়োজনে বাইরে ঘোরাফেরা করা ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা হচ্ছে। করোনা নিয়ন্ত্রনে ও জনস্বার্থে এই অভিযান অব্যহত থাকবে।


error: দৈনিক হুংকারে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।